প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] খুবই দক্ষতার সঙ্গে বৈদেশিক ঋণ ব্যবস্থাপনা করে আসছে বাংলাদেশ: চীনের রাষ্ট্রদূত

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: [২] কসমস ফাউন্ডেশনের ওয়েবিনারে যুক্ত হয়ে ঢাকায় চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, বাংলাদেশের কোনও অসামঞ্জস্যপূর্ণ ঋণ নেই এবং আন্তর্জাতিক ঋণ পরিশোধ ও ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই বেশ সুনাম অর্জন করেছে। তাই, বাংলাদেশ কখনও ঋণের ফাঁদে পড়বে না।

[৩] শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর কোনও দেশেই ঋণের ফাঁদ তৈরির চেষ্টা করেনি চীন। তিনি দাবি করেন এমন কোনও কার্যক্রমের প্রমাণ নেই।

[৪] দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ও সহযোগিতায় ‘ঋণ’ কখনও কূটনৈতিক নিয়ন্ত্রণের চাবিকাঠি হয়ে উঠবে না বলেও জানান চীনের রাষ্ট্রদূত।

[৫] বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প খাত এখন এতটাই উন্নতি করেছে যে, বাংলাদেশের কাছ থেকে চীন গারমেন্টস পণ্য কিনে নিয়ে যাচ্ছে। অথচ বেশ কয়েক বছর আগেও বাংলাদেশের কাছ থেকে পোশাক আমদানি করতো না চীন।

[৬] উভয় দেশের মধ্যে ব্যাপকভাবে প্রযুক্তির আদান-প্রদান ঘটছে উল্লেখ করে লি বলেন, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তিস্তা প্রকল্পের ব্যাপারে যে প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে, তা অত্যন্ত সাধারণ মানের।

[৭] আপনারা প্রথমে একটি পূর্ণাঙ্গ সম্ভাব্যতা যাচাই এর প্রতিবেদন তৈরি করুন। এর পরে আমরা এই প্রকল্প মূল্যায়নের কাজ শুরু করবো। এই প্রকল্পের অর্থনৈতিক, প্রকৃতিক এবং ভূ-রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটগুলোও আমাদের যাচাই-বাছাই করতে হবে।

[৮] বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যকার বর্তমান চলমান সম্পর্ক ও বাংলাদেশের প্রতি চীন সরকার ও জনগণের সমর্থনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন দেশটির রাষ্ট্রদূত।

সর্বাধিক পঠিত