প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পুলিশি সহায়তায় ব‌কেয়া বেতন ভাতা বুঝে পেলেন ‌সাবেক সেনা কর্মকর্তা

সুজন কৈরী: [২] অবসরপ্রাপ্ত একজন সেনা সদস্য একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। সম্প্রতি তিনি প্রতিষ্ঠান থেকে পদত্যাগ করেন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি তার বেতন-ভাতা পরিশোধ করছিলো না। এতে তিনি হতাশ হয়ে পড়েন। পরে এ বিষয়ে গত ৮ জুন বাংলাদেশ পুলিশের ফেসেবুক পেজে সহযোগিতা চান সাবেক ওই সেনা কর্মকর্তার ছেলে। এরপর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখে এবং তার সমস্যার সমাধান করে।

[৩] বৃহস্পতিবার পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. সোহলে রানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৮ জুন অবসরপ্রাপ্ত একজন সেনা কর্মকর্তার ছেলে বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইংকে জানান, তার বাবা অবসর গ্রহণের পর ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করছিলেন। কিছুদিন আগে তিনি কোম্পানির নিয়ম এবং চাকরির শর্তাবলী পূরণ করেই পারিবারিক কারণে চাকরি থেকে পদত্যাগ করেন। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি তার বেতন-ভাতা ও আর্থিক যেসব সুবিধাদি নিয়ম অনুযায়ী প্রাপ্য ছিল সেগুলো পরিশোধ করছিলো না। করোনাকালে পারিবারিক নানা কারণে এই পাওনা বুঝে পাওয়া জরুরি ছিল। কোনোভাবেই মালিকপক্ষের কাছ থেকে সাড়া না পেয়ে তিনি হতাশ হয়ে পড়েছিলেন।

[৪] বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এমন পরিস্থিতিতে সাবেক ওই সেনা কর্মকর্তার ছেলে মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইংকে বার্তা পাঠিয়ে সহযোগিতা চান। পরে মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং ওসি গুলশান মো. আবুল হাসানকে বার্তাটি পাঠায়। ওসি জরুরি ভিত্তিতে ওই কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করে ভুক্তভোগী সেনা কর্মকর্তার সব ন্যায্য পাওনা পরিশোধের ব্যবস্থা করতে অনুরোধ করেন। পরে প্রতিষ্ঠানটি তার সব পাওনা পরিশোধ করে দেয়।

[৫] মি‌ডিয়া এন্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স উইং‌কে লি‌খিত এক বার্তায় বাংলা‌দেশ পু‌লিশ‌কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন ক‌রে‌ন ভুক্তভোগী সেনা কর্মকর্তা ও তার ছে‌লে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত