প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিকল্প ব্যবস্থা ছাড়াই ফুটওভার ব্রিজ ভেঙে মেরামত, ঝুঁকি নিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পারাপার

মো.শাহজালাল মিয়া : [২] প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হাজার হাজার পথচারী ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক পারাপার হচ্ছেন। না আছে ট্রাফিক পুলিশ, না আছে স্প্রিডব্রেকার। রাস্তা পারাপারের নিরাপদ কোনাে বিকল্প ব্যবস্থা না করেই নারায়ণগঞ্জের সােনারগাঁ উপজেলার মােগরাপাড়া চৌরাস্তার ফুটওভার ব্রিজ মেরামতের জন্য ভেঙে ফেলা হয়েছে। এতে স্থানীয় লােকজন ভােগান্তির শিকার হচ্ছেন।

[৩] পদচারী কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, মােগরাপাড়া চৌরাস্তার পদচারী-সেতুটি দীর্ঘদিন মেরামত না করায় সেতুর পিলারে ভাঙনের সৃষ্টি হয়। ছয় মাস ধরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ সেতু দিয়ে মানুষ মহাসড়ক পারাপার হচ্ছিলেন। তাই সেতুটি মেরামত করতে এলাকাবাসীরা স্থানীয় প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেন।

[৪] ফলে পাঁচ দিন আগে পূর্ব ঘােষণা ছাড়াই সড়ক ও জনপথ ( সওজ ) অধিদপ্তরের নারায়ণগঞ্জ সড়ক বিভাগের প্রকৌশলীদের নির্দেশে ফুটওভার ব্রিজ মেরামত করার সঙ্গে জড়িত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ফুটওভার ব্রিজের মাঝখানের দুটি লােহার তৈরি পাঠাতন খুলে মেরামতের কাজ শুরু করেন। ফুটওভার ব্রিজের মাঝখানের লােহার পাঠাতন খুলে নেওয়ায় মানুষের পারাপার বন্ধ হয়ে যায়।

[৫] ফুটওভার ব্রিজের দুই পাশে ৫০০ মিটার এলাকাজুড়ে মহাসড়কের মাঝখানে ওয়াল ও লােহার শিক রয়েছে। এ কারণে মানুষ পাঁচ দিন ধরে সেতুর পার্শ্ববর্তী স্থান দিয়ে পারাপার হতে না পেরে ৫০০ মিটার দূর দিয়ে পায়ে হেঁটে ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে লােকজন চরম ভােগান্তির শিকার হচ্ছেন।

[৬] রোববার বিকেলে দেখা যায়, অনেকেই ৫০০ মিটার দূর দিয়ে পায়ে হেঁটে না গিয়ে লােহার শিকের ওপর দিয়ে লাফিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মহাসড়ক পারাপার হচ্ছেন।

[৭] নারায়ণগঞ্জ সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মেহেদী ইকবাল বলেন, দ্রুত সেতুর মেরামতের কাজ শেষ করে পথচারী পারাপারের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত