প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আনুষ্ঠানিকভাবে গিনিতে ইবোলার সমাপ্তি ঘোষণা করলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

নুরে আলম: [২] বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তা আলফ্রেড বলেন, আমি গর্বের সাথে ঘোষণা করছি যে জানুয়ারিতে গিনির দক্ষিন-পূর্ব অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া ভয়ঙ্কর ইবোলা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এখন আর নেই। এখানে শূন্যের কোটায় নামাতে আমরা সক্ষম হয়েছি। ইয়ন

[৩] সর্বশেষ এখানে ৭ জন সাম্ভাব্য রোগী ছিলো, ১৬ জন নিশ্চিত রোগী ছিলো যার মধ্যে ১২ জনের অবস্থা মারাত্মক ছিলো। এটা ছিলো গিনিতে ইবোলার দ্বিতীয় ধাক্কা। লাইবেরিয়া, গিনি ও সিয়েরালিওনে ইবোলায় ১১,৩০০ জনের প্রাণ নিয়েছে।

[৪] ইবোলার ফলে মারাত্মক জ্বর হয়। আর পরিস্থিতি অবনতি ঘটলে অবিরাম রক্তপাত হতে থাকে। শরীরের তরলের মাধ্যমে এই ভাইরাস ছড়ায়। যারা ইবোলা রোগীর সেবা করে তাদেও সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা সবথেকে বেশি।

[৫] পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকার জন্য এই বছর গিনি বেশ দ্রুততার সাথে এর থেকে পরিত্রাণ পেয়েছে। প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার পাশাপাশি বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার সহায়তায় গিনিতে এবার ইবোলার টিকা দেওয়া হয়।

সম্পাদনা: মারুফ হাসান

সর্বাধিক পঠিত