প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফারুক আআহমেদ: বন্ধুর করোনা পজেটিভ এবং করোনার টিকা রহস্য

ফারুক আআহমেদ: আমার এক স্কুল বন্ধু। তার হার্টে রিং পড়ানো। উচ্চ রক্তচাপ। সাথে ডায়াবেটিস। বেশ কিছুদিন আগে সে করোনার ২ ডোজ টিকা নেওয়া সম্পন্ন করেছে। আশা করা যায় সে করোনার আক্রমণ থেকে আপাতত মুক্ত। গত আনুমানিক ১২ দিন আগে হঠাৎ তার কিছুটা শরীর খারাপ। সে ডাক্তারের কাছে পরামর্শ চাইলো। ডাক্তার আমার বন্ধুর সব কথা শুনে করোনা পরীক্ষা করাতে বললেন। বন্ধু ডাক্তারকে বললো তার ২ ডোজ টিকা নেওয়া আছে। করোনা পরীক্ষা কেন করাবে? ডাক্তার তারপরও তাকে করোনা পরীক্ষা করাতে বললেন। ডাক্তারের কথায় এবং বাসার সকলের প্রেসারে আমার সেই বন্ধু করোনা পরীক্ষা করালো। রিপোর্ট আসলো করোনা পজিটিভ। সবাই অবাক। ২ ডোজ টিকা নেওয়ার পরও করোনা পজিটিভ?

আমার বন্ধু বিষয়টি ডাক্তার সাহেবকে জানালেন। ডাক্তার সাহেব তখন বললেন, করোনার কোনো টিকার ক্ষেত্রে কোনো বিজ্ঞানী বলেননি যে টিকা শতভাগ রোগ প্রতিরোধ করবে। এই টিকা সর্বোচ্চ ৯৩ শতাংশ করোনা রোগ প্রতিরোধক। তার মানে করোনা হওয়ার সম্ভাবনা অন্তত ৭ শতাংশ থেকেই যাচ্ছে। যাইহোক আমার বন্ধুর দুর্ভাগ্য ৭ শতাংশের মধ্যে সে পরেছে। তবে সুসংবাদ হলো, উচ্চ রক্তচাপ, হার্টে রিং পড়ানো এবং ডায়াবেটিস থাকা সত্ত্বেও করোনা হওয়ার পর আমার বন্ধুর তেমন কোনো সমস্যা হয়নি। না শরীর ব্যথা, না জ্বর, না স্বাসকষ্ট।

বাসায় থেকেই সে নিয়মকানুন মেনে চলেছে এবং বর্তমানে সে সুস্থ। তার করোনা নেগেটিভ। ডাক্তার সাহেব বললেন, যেহেতু বন্ধুর ২ ডোজ করোনার টিকা দেওয়া আছে, সেহেতু তার শরীরে করোনা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে। যার কারণে করোনা তাকে বেশি সমস্যা করতে পারেনি। ডাক্তার সাহেব আরও বললেন, ২ ডোজ করোনার টিকা নেওয়ার পর একজন লোকের করোনা হয়ে খুব জটিল সমস্যা হয়েছে বা কোনো লোকের মৃত্যু হয়েছে এমন খবর তার জানা নেই। যারা এখনো টিকা নেননি তাদের উচিত সুযোগ থাকলে অতি দ্রুত টিকা নেওয়া। মহান আল্লাহ সকলের মঙ্গল করুন।

লেখক : অভিনেতা। ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত