শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৫ জুন, ২০২১, ০৩:৩১ রাত
আপডেট : ১৫ জুন, ২০২১, ০৩:৩১ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রেজা ঘটক: যে ট্রমা পরীমনি ফেস করেছেন, তা যেকোনো মানুষের জন্য ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা

রেজা ঘটক: অভিনেত্রী পরীমনির সাংবাদিক সম্মেলন দেখলাম। পরীমনির সঙ্গে যা ঘটেছে তার সুষ্ঠু তদন্ত করে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে। যে ট্রমা তিনি ফেস করেছেন তা যেকোনো মানুষের জন্য ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা। পরীমনি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। পরীমনির অভিযোগ পুলিশ কেন চার দিন পর্যন্ত আমলে নেয়নি, তা বনানী থানাকে যথাযথভাবে ব্যাখ্যা করতে হবে। বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, মানবাধিকার সংগঠন, আইনজীবী সংগঠন, চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠন, চলচ্চিত্র পেশার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিবর্গ, এমনকি বাংলাদেশের যেকোনো নাগরিকের এই ঘটনার জন্য ন্যায়বিচার দাবি করার অধিকার রয়েছে।

বাংলাদেশের যেকোনো নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যেমন সরকারের দায়িত্ব, তেমনি যেকোনো নাগরিকের উপর এ ধরনের জঘন্য অপরাধের সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচার নিশ্চিত করাও সরকারের কর্তব্য। সরকারের প্রথম কাজ হবে পরীমনির সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। উক্ত ঘটনার জন্য পরীমণিকেই প্রথম আদালতের শরণাপন্ন হতে হবে এমন কোনো কথা নেই। পরীমনির পক্ষে যেকোনো আইনজীবী, মানবাধিকার সংগঠন, মহিলা আইনজীবী সমিতি, চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠন কিংবা মহামান্য আদালত স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে ওই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচার দাবি করতে পারে। এমনকি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদ্ন্ত করবে বলে আমরা বিশ্বাস করতে চাই। যেহেতু ঘটনা জানার পরেও বনানী থানার বিরুদ্ধে সুস্পষ্টভাবে পরীমনি অবহেলার অভিযোগ করেছেন, সেহেতু বনানী থানাকে এই অভিযোগেরও জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে। এই ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা হিসেবে এড়িয়ে যাবার সুযোগ নেই। কারণ পরীমনি সাংবাদিক সম্মেলন করার আগেই নিজের ভ্যারিফাইড ফেসবুক পেইজে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন। আমরা পরীমনির সার্বিক নিরাপত্তাসহ উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায়বিচার প্রত্যাশা করছি। ফেসবুক থেকে

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়