প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বোরো মৌসুমে চাল সংগ্রহে কাঙ্খিত লক্ষে কাজ করছে খাদ্য বিভাগ

তৌহিদুর রহমান : [২] সরকারি ভাবে বোরো চাল সংগ্রহ কর্যক্রম চলছে। চলতি বোরো মওসুমে জেলায় সরকারি খাদ্য গুদামগুলোর জন্য ৪১ হাজার মেঃ টন চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। জেলায় ১০টি খাদ্য গুদামের জন্য
এসব চাল সংগ্রহ করা হচ্ছে।

[৩] লক্ষ্যমাত্রা অনুয়ায়ী চাল সংগ্রহের জন্য ৩শ ১৬ টি চালকলের সাথে চুক্তি করেছে খাদ্য বিভাগ। এর মধ্যে রয়েছে ১৮ টি অটোমেটিক চালকল ও ২শ ৯৮ টি হাসকিং চাল কল। ৭ মে থেকে জেলায় শুরু হওয়া চাল সংগ্রহ অভিযান চলবে ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত। এখন পর্যন্ত সরকারিভাবে ২৫ হাজার ৭৫৩ মেঃ টন চাল সংগ্রহ করা হয়েছে।

[৪] চালকল মিল মালিকরা জানান, ধানের দাম বেড়ে যাওয়ায় সরকার নির্ধারিত সংগ্রহমূল্যে গুদামে চাল সরবরাহ করলে
কাঙ্খিত মুনাফা হবে না।গত বছর বোরো মওসুমে সংগ্রহমূল্য ছিল ৩৬ টাকা কেজি সিদ্ধ চাল এবং ২৫ টাকা কেজি আতব চাল। এবার মিল মালিকদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে প্রতি কেজিতে ৪ টাকা করে দর বৃদ্ধি করে সরকার। এতে আতব চাল
৩৯ টাকা এবং সিদ্ধ চাল ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

[৫] তবে বাজারে ধানের দাম বেড়ে যাওয়ায় সরকার নির্ধারিত সংগ্রহমূল্যে চাল সরবরাহ করতে হিমশিম খাচ্ছি আমরা
চালকল মালিকরা। চালকল মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ বাবুল মিয়া বলেন, আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলেও বৃহত্তর স্বার্থে মিল মালিক চুক্তি মত চাল সরবরাহ করছে।

[৬] জেলায় এ পর্যন্ত ৮ হাজার মেঃ টন চাল সরবরাহ করা হয়েছে। এদিকে কাঙ্খিত মুনাফা না হলেও গুদামে চাল সরবরাহের করা হচ্ছে।

[৭] ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা সুবীর নাথ চৌধুরী বলেন, চাল সংগ্রহের গতি সন্তোষজনক। এ পর্যন্ত ২০ভাগ লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়েছে । জেলায় সরকারি ভাবে বছরে ২ বার চাল সংগ্রহ অভিযান করা হয়। একটি বোরো মওসুমে ও একটি আমন মওসুমে। এদিকে চলতি মওসুমে সংগ্রহমূল্য ভাল থাকায় চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা শতভাগ অর্জিত হবে বলে আশা করছি। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত