প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাংবাদিক ও মানবাধিকারকর্মী পরিচয়ে চাঁদাবাজী করতেন তিনি!

সুজন কৈরী: রাজধানীর উত্তর যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে একজন চাঁদাবাজ ও প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১০। তার নাম- সেলিম ওরফে মোস্তফা সেলিম।

র‌্যাব-১০ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শুক্রবার উত্তর যাত্রাবাড়ী এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে সেলিমকে গ্রেপ্তার করা হয়। সেলিম গত ৩০ মে যাত্রাবাড়ী থানায় দায়ের হওয়া একটি মামলার (নং-১০৫) এজাহারভুক্ত আসামি। এছাড়া তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, প্রতারনা ও নারী পাচারের অভিযোগ রয়েছে। গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে ২টি মোবাইল ফোন ও নগদ ৭০০ টাকা জব্দ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৯ মে সেলিম তার সহযোগীরা মিলে হোটেল হলিডের মালিক ইউসুফ রিপনের কাছে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি দেখিয়ে ৭ হাজার টাকা চাঁদা নেন। ওই সময় সেলিম হোটেল মালিকের কাছে আরও ১০ হাজার টাকা চাদা দাবি করেন এবং না দিলে হোটেল ব্যবসা বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেন। ঘটনার সময় র‌্যাবের টহল গাড়ী দেখে হোটেল মালিক র‌্যাবের কাছে সাহায্য চান। পরে র‌্যাবের দলটি গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে নাজমুল হোসেন নামের একজনকে চাঁদাবাজীর ৭ হাজার টাকাসহ হাতে নাতে গ্রেপ্তার করে। ওই সময় সেলিম কৌশলে পালিয়ে যান। পরে হোটেল মালিক বাদি হয়ে থানায় মামলা করে। এরপর র‌্যাব পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তারের লক্ষে বিশেষ টিম নিয়োগ করে। এরই ধারাবাহিকতায় অভিযান চালিয়ে সেলিমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার সেলিম জানিয়েছেন, তিনি বেশ কিছুদিন ধরে ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানা এলাকায় বিভিন্ন আবাসিক হোটেল ব্যবসায়ীদের কাছে সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মী, গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যসহ বিভিন্ন মিথ্যা পরিচয় দিয়ে হুমকি দিয়ে মোটা অঙ্কের চাঁদা আদায় করছিলেন। এছাড়া গ্রেপ্তার সেলিম মেয়েদের দিয়ে বড় বড় ব্যবসায়ী ও নিরীহ লোকদের চক্রান্তে ফেলে মিথ্যা মামলার ভয় দেখিয়ে মিমাংসার নামে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিতেন। গ্রেপ্তার সেলিমকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত