প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৬ লাখ পাউন্ড বেতন-ভাতা নিয়ে চাকরি ছাড়লেন গার্ডিয়ানের প্রধান নির্বাহী

রাশিদ রিয়াজ : গার্ডিয়ানের সম্পাদক ক্যাথারিন ভিনারের সঙ্গে পত্রিকার গ্রুপের ভবিষ্যত নিয়ে মতপার্থক্যের কারণেই প্রধান নির্বাহী অ্যানেট থমাস। সম্পাদকের সঙ্গে কিছুতেই বনিবনা হচ্ছিল না অ্যানেটের। দুজনের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। ঝামেলা সৃষ্টি হয় গার্ডিয়ানের অনলাইন ভার্সন থেকে আরো বেশি আয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে। ১৫ মাস ধরে গার্ডিয়ান মিডিয়া গ্রুপে প্রধান নির্বাহী হিসেবে চাকরি করছিলেন অ্যানেট থমাস। নতুন চাকরিও খুঁজে পেয়েছেন অ্যানেট। কেইথ আন্ডারউডে ফিনান্সিয়াল এন্ড অপারেটিং অন্তর্বর্তীকালীন কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দিচ্ছেন অ্যানেট। গার্ডিয়ান মিডিয়া গ্রুপ মালিকানা স্কট ট্রাস্টের এবং প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা জন্যে ১ বিলিয়ন পাউন্ডের তহবিল রয়েছে। ডেইলি মেইল

সম্প্রতি ডেইলি টেলিগ্রাফ এক প্রতিবেদনে জানায় মিস অ্যানেট থমাস ও গার্ডিয়ানের সম্পাদক ক্যাথারিন ভিনারের সঙ্গে প্রবল মতপার্থক্যের সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির অবকাঠামো নিয়ে এ মতপার্থক্য সৃষ্টি হয়। গার্ডিয়ানের ইতিহাসে ১৯৪ বছরে প্রথম নারী সম্পাদক হিসেবে ক্যাথারিন নির্বাচিত হন। টাইমসের আরেক প্রতিবেদন বলছে দুজন নারী নির্বাহীর মধ্যে মতপার্থক্যের আরেক কারণ হচ্ছে ক্যাথারিন চেয়েছিলেন সাংবাদিকতায় আরও নতুন বিনিয়োগ করতে কিন্তু অ্যানেট তা আরো সুশৃঙ্খল পদ্ধতির মধ্যে দিয়ে করতে বলায় তাদের মধ্যে বিতর্ক গড়ায় উত্তেজনা ও তীব্র বিরোধে। শুরুতে বিষয়টি ছোট সমস্যা থাকলেও তা শেষ পর্যন্ত বড় ধরনের মতভেদে দাঁড়ায়। গত বছর মার্চে অ্যানেট গার্ডিয়ানে যোগদানের পর ৫০ শতাংশ লোকসান কমাতে সমর্থ হন। যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল থেকে তিনি নিউরোসাইন্সে ডক্টরেট করার পর কয়েক দশক একাডেমিক প্রকাশনার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ইয়েল কর্পোরেশনের নন-এক্সিকিউটিভ ট্রাস্টি ফেলো হিসেবে দায়িত্ব পালন ছাড়াও কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে বোর্ড মেম্বার হিসেব কাজ করেন। নিজেকে টুইটার বায়োগ্রাফিতে একজন মা ও নারীবাদী হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন অ্যানেট। বায়োকেমিস্ট্রি ও বায়োফিজিক্সে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেন ১৯৮২ থেকে ১৯৮৬ সালের মধ্যে। এরপর তিনি পাঁচ বছরে দর্শন, সেল বায়োলজি ও নিউরোসাইন্সে ইয়েল থেকে ডক্টরেট করেন।

তবে গার্ডিয়ান কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত হচ্ছে হয় অ্যানেট কিংবা ক্যাথারিনকে সরে যেতে হবে। কর্তৃপক্ষ এও স্বীকার করছে মার্কিন নাগরিক অ্যানেট যোগদানের পর গার্ডিয়ানের লোকসান উল্লেখযোগ্য পরিমানে হ্রাস পায়। অন্যদিকে ক্যাথারিন গার্ডিয়ানে যোগ দেন ১৯৯৭ সালে। অ্যানেট হচ্ছেন একজন আপাদমস্তক কর্পোরেট নারী যিনি প্রক্রিয়া চালিত করে এবং সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ অনুশীলনের আশা করেন। ক্যাথারিন গার্ডিয়ানের একজন অভিভাবক এবং এর মিশনে সম্পূর্ণ বিশ্বাসী। গার্ডিয়ান মিডিয়া গ্রুপ এর অবকাঠামো ও প্রক্রিয়া পদ্ধতি যাচাইয়ের দুই মাস পর স্কট ট্রাস্ট সিদ্ধান্ত দেন অ্যানেটকেই চলে যেতে হবে। এব্যাপারে অ্যানেট বলেন এক বছরে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তনের পরে, একটি নতুন কৌশলগত পরিকল্পনা এবং উচ্চ দক্ষতা সম্পন্ন পেশাগত দল নেয়ার পর সাংবাদিকতা এবং ডিজিটাল অনলাইনে পাঠকের মাধ্যমে উপার্জনের দিকে মনোনিবেশ আমরা যথেষ্ট পরিমাণে বাড়িয়ে দেওয়ার পরও প্রধান নির্বাহীর ভূমিকা থেকে পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ গার্ডিয়ানের পাঠককেন্দ্রিক কৌশলগত পরিকল্পনার বাস্তবায়নের জন্য বা প্রতিষ্ঠানটির পুরোপুরি বিকশিত হওয়ার জন্য প্রশাসন ও কাঠামোর আরও সময় প্রয়োজন ছিল বলে মনে করি। অ্যানেট ও ক্যাথারিনের মধ্যে তীব্র মতবিরোধ এমন পর্যায়ে পৌঁছে যে কে প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষে এবং কার মাধ্যমে এটি পরিচালিত হওয়া প্রয়োজন সে নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল। এর পাশাপাশি কোভিড মহামারীজনিক কাটতি ঘাটতিতে গার্ডিয়ান যে ক্ষতির শিকার হয় তা অনেকটাই পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয় অ্যানেটের বুদ্ধিমত্তায়। তবে ক্যাথারিন চান গার্ডিয়ানে আরো নতুন বিনিয়োগ। তবে তিনি বিষয়টি গার্ডিয়ান মিডিয়া গ্রুপকে না জানিয়ে স্কট ট্রাস্টিকে জানান। গার্ডিয়ান মিডিয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান নেইল বারকেট বলেন আমাদের সুস্পষ্ট কৌশল ও শক্তিশালী ব্যবস্থাপনা দল রয়েছে। কোভিড সত্ত্বেও পাঠকদের আস্থা ও সম্পর্ক বজায় রেখে আমরা প্রবৃদ্ধি অর্জনে সক্ষম হব। গার্ডিয়ানের বোর্ডের পক্ষ থেকে ক্যাথারিন ও এই ব্যবস্থাপনা দলকে অব্যাহত সমর্থন দেওয়া হচ্ছে।

ক্যাথারিন সাংবাদিকতার পাশাপাশি একজন বরেণ্য নাট্যকার। ২০১৫ সালে তিনি গার্ডিয়ানের এডিটর-ইন-চিফ নির্বাচিত হন। ব্রিটেনের ইয়র্কশায়ারে বেড়ে ওঠা ক্যাথারিন পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ আন্দোলনের কর্মী হিসেবে পরবর্তীতে বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। ১৯৯৭ সালে তিনি গার্ডিয়ানে লেখা শুরু করেন। অক্সফোর্ডের পেমব্রোক কলেজে ইংরেজির ওপর পড়াশুনা করেন তিনি। ২০০৮ সালে ডেপুটি এডিটর হিসেবে গার্ডিয়ানে নিয়োগ পান ক্যাথারিন। ২০১৩ সালে গার্ডিয়ান অস্ট্রেলিয়া ক্যাথারিনের হাত দিয়ে যাত্রা শুরু করে। নিউইয়র্ক ভিত্তিক গার্ডিয়ান ইউএস’এর সম্পাদক ছিলেন তিনি। ২০০২ সালে ‘ফেমিনিজম এ্যাজ ইমপেরিয়ালিজম’ নামে (‘সাম্রাজ্যবাদ হিসাবে নারীবাদ’) এক কলামে ক্যাথারিন যুক্তি দিয়েছিলেন যে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ ‘নারীর নামে যুদ্ধ পরিচালানার প্রথম সাম্রাজ্য নির্মাতা’ ছিলেন না। ২০০৯ সালে গাজায় ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর বুলডোজারের চাপায় মার্কিন সংবাদকর্মী র‌্যাচেল কেরির চিঠিপত্র থেকে ‘মাই নেম ইজ রাহেল ক্যারি’ প্রতিবেদনটির সহ-সম্পাদনা করেছিলেন ক্যাথারিন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত