প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আগস্ট থেকে স্বাভাবিক ধারায় ফিরতে পারে পোশাক রপ্তানি: বিজিএমইএ সভাপতি

শরীফ শাওন: [২] পোশাক রপ্তানি খাত পুরোপুরি ঘুরে দাঁড়ায়নি জানিয়ে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, গত বছরের তুলনায় জুলাই থেকে মে পর্যন্ত এই ১১ মাসে রপ্তানি কমেছে ১০ শতাংশ। তবে ২০১৯-২০ অর্থবছরে যে ঘাটতি হয়েছে, চলতি অর্থবছরের ১১ মাসে ১১ শতাংশ ঘাটতি কমেছে।

[৩] মঙ্গলবার সভাপতি জানান, করোনার আগে আমাদের রপ্তানি ৩ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের বেশি থাকলেও ২০১৯-২০ অর্থবছরে করোনায় রপ্তানি নেমে আসে ২ হাজার ৮০০ কোটি ডলারের নিচে। ২০২০-২১ অর্থবছরের ১১ মাসে ২ হাজার ৮৫০ কোটি ডলারের পোশাক পণ্য রপ্তানি হয়েছে। আশা করা যায়, এ অর্থবছরে এর পরিমান দাঁড়াবে ৩ হাজার ১০০ কোটি ডলারে।

[৪] কিউআইএএ আন্তর্জাতিক প্রতিবেদনে ইথিক্যাল ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে ৭.৭ স্কোর নিয়ে বাংলাদেশ দ্বিতীয় স্থান অধীকার করেছে। যেখানে স্কোর ৮ নিয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে তাইওয়ান। তুর্কি, ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, ইন্ডিয়ার র‌্যাংকি বাংলাদেশের নিচে। তিনি বলেন, ইথিক্যাল ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে বাংলাদেশের মানোন্নয়ন হলেও বায়ারা ইথিক্যাল সোর্সিং বা বায়িং করেন না।

[৫] ফারুক হাসান বলেন, বৈশ্বিক বাজারে নন কটন পণ্যের চাহিদা বাড়ছে। মোট পণ্যের মধ্যে কটনের শেয়ার মাত্র ২৫ শতাংশ। প্রতিযোগী দেশগুলোতে পণ্যটির কাঁচামাল ‘পেট্রোক্যামিকেল চিপস’ থাকায় এবং তাদের স্কেল ইকনোমির কারণে প্রতিযোগী সক্ষমতায় আমরা পিছিয়ে পড়ছি। ফলে বাজার ধরতে হলে, বিনিয়োগ ও রপ্তানিতে উৎসাহিত করতে নন কটন পোশাক রপ্তানিতে ১০ শতাংশ হারে প্রণোদনা প্রয়োজন।

[৬] তিনি জানান, ৩ মাসের মধ্যে বিজিএমইএ ভবনে সেন্টার অব অ্যাফোসিয়েসি করবো। সেখানে নিত্য নতুন ডিজাইন ও উদ্ভাবন বিষয়ে কাজ করা হবে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত