প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ডেমরায় শ্বাসরোধ করে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেপ্তার

মো. বশির উদ্দিন: [২] রাজধানীর ডেমরায় মোছা.রুজিনা খাতুন (২৬) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে তার স্বামী মো. দ্বীন ইসলামকে (৩৪) গ্রেফতার করেছে ডেমরা থানা পুলিশ।

[৩] শনিবার বিকালে ডেমরার মীরপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

[৪] এদিকে স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে শুক্রবার দিনগত রাত সাড়ে ১০ টার দিকে নাইলনের রশি দিয়ে গলায় পেচানো ও সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য লাশ রাজধানীর মিটফোর্ড স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। মৃত রুজিনা খাতুন ফরিদপুরের মধুখালি থানার মির্জাপুর গ্রামের আব্দুল খালেক বিশ্বাসের মেয়ে। আর গ্রেফতার দ্বীন ইসলাম একই এলাকার মেঘচামী এলাকার মো. রবিউল ইসলাম ওরফে নবু বিশ্বাসের ছেলে। বর্তমানে সে ডেমরার মীরপাড়া এলাকার জহিরউদ্দিনের বাড়ীর ভাড়াটিয়া। এদিকে এ খুনের বিষয়ে মৃতের বড় ভাই রিপন বিশ্বাস শনিবার দুপুরে ডেমরা থানায় দ্বীন ইসলামের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

[৫] মৃতের পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে বিষয়টি নিশ্চত করে ডেমরা থানার ওসি খন্দকার নাসির উদ্দীন বলেন, গত ১১ বছর পূর্বে পারিবাক ভাবে বিয়ে দ্বীন ইসলাম ও রুজিনা খাতুনের।

[৬] বর্তমানে এ সংসারে ২ মেয়ে ও ১ ছেলে রয়েছে। এদিকে গত ২ বছর আগে দ্বীন ইসলাম অন্যত্র দ্বীতিয় বিয়ে করলে কিছুদিন পর তার প্রথম সংসারের খবর পেয়ে দ্বীন ইসলামকে তালাক দেয় তার দ্বীতিয় স্ত্রী। এদিকে গত কয়েক দিন ধরেই পারিবারিক নানা বিষয়ে রুজিনার সঙ্গে দ্বীন ইসলামের ঝগড়া বিবাদ চলে আসছিল।

[৭] এ ঘটনা জানাকে গত শুক্রবার সকাল ১০ টায় রুজিনা তার বড় রহিমাকে মোবাইল ফোনে বলেন যে দ্বীন ইসলাম তাকে শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করছে প্রতিনিয়ত। এদিকে শুক্রবার রাত ৮ টার দিকেই রহিমা জানেত পারেন রুজিনার মৃত্যুর খবর।

[৮] ওসি খন্দকার নাসির উদ্দিন আরও বলেন, গ্রেফতারের পর দ্বীন ইসলাম নাইলনের রশি গলায় পেঁচিয়ে তার স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে পালিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করেন। রোববার সকালে তাকে আদালতে পাঠানো হবে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

সর্বাধিক পঠিত