প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভা উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

শওগাত আলী সাগর, ফেসবুক থেকে , ১. না, ঘটনাটা রাজধানী কিংবা কোনো বড় শহরের নয়। রাজশাহী থেকে ১০ কিলোমিটারের দুরের একটি পৌরসভায় এই ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে, সেটা আমি অন্তত ভাবিনি। কোভিড নিয়ে বাংলাদেশ প্রসঙ্গে যখনি কথা উঠেছে, ঠিক এই কথাগুলোই বলার চেষ্টা করেছি সবসময়। রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভা সেই কাজগুলোই হাতে কলমে করে ফেরেছে। অথচ আমরা তার খোঁজও রাখিনি।

২. পৌরসভায় এলাকায় কেউ মাস্ক ছাড়া যায় না, বাজারেও না, সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে- বাংলাদেশের কোনো একটি অঞ্চলের চিত্র এটি, ভাবা যায়! অথচ এটিই বাস্তব। কিভাবে সম্ভব হলো সেটি? সেই কথাই সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন প্রথম আলোয় তার রিপোর্টে।

৩. ২০১১ সালের আদমশুমারীর তথ্যানুসারে ৪৭ হাজার মানুষের কাটাখালী পৌরসভা কর্তৃপক্ষ গত বছর থেকেই মানুষকে সচেতন করার নানা ধরনের উদ্যোগ নিয়েছেন।স্থানীয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর আলম প্রথম আলোকে বলেন, পৌরসভার মানুষকে মেয়র এমনভাবে উদ্বুদ্ধ করেছেন, সব মানুষই মাস্ক পরছেন, স্বাস্থ্যবিধি মানছেন।আর পৌর মেয়র আব্বাস আলী বলেন, গত বছর করোনার শনাক্তের পর থেকে তিনি সবাইকে নিয়ে সমন্বয় করে কাজ করে যাচ্ছেন। সবাইকে নিয়েই তিনি সিদ্ধান্ত নেন। সবার পাশাপাশি এলাকার শিক্ষিত যুবক শ্রেণি এ কাজে তাঁকে সাহায্য করে আসছেন।

৪.আর কাটাখালীর পৌর মেয়র আব্বাস আলী যে কাজটি করেছেন সারাদেশের জনপ্রতিনিধিদের তো এই কাজটিই করার কথা ছিলো। প্রতি এলাকায় জনপ্রতিনিধিরা এইভাবে দায়িত্ব পালনে এগিয়ে এলে করোনা নিয়ে বাংলাদেশকে কোনো ভোগান্তির মুখেই পরতে হতো না। সীমান্ত জেলাগুলোর জনপ্রতিনিধিরা এভাবে এগিয়ে এলে সেখানকার পরিস্থিতি নিয়েও কোনো দুশ্চিন্তা করতে হবে না।

৫. সীমান্ত জেলাগুলোয় যখন করোনার সংক্রমণ ধাই ধাই করে বাড়ছে, তখন কাটাখালীর মেয়র আব্বাস আলী অবশ্যই সবার জন্যই অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত।স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা তার মতো এগিয়ে এসে মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণে উদ্বুদ্ধ করার দায়িত্ব নিলে পরিস্থিতি পাল্টে যেতে বাধ্য। একই সঙ্গে প্রচুর পরিমানে মাস্ক সরবরাহ এবং সেটি ব্যবহার নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিতে হবে। জনপ্রতিনিধিদের আন্তরিক এবং সক্রিয় অংশ গ্রহণ অবশ্যই পরিস্থিতিকে পাল্টে দেবে।
প্রথম আলো এবং রিপোর্টার শফিকুল ইসলামকে অবশ্যই ধনবাদ দেবো, ব্যতিক্রমী এই ধরনের চিত্র পাঠকদের সামনে তুলে আনার জন্য।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত