প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ১৯ জুন চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভার্চুয়াল সম্মেলন: কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা নতুন নেতৃত্ব নির্ধারণ করবে

রিয়াজুর রহমান : [২] প্রায় ২১ বছর পর হতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের এি- বার্ষিক সম্মেলন। আগামী ১৯ জুন এ ভার্চুয়াল সম্মেলনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করেছে কেন্দ্র। চট্টগ্রাম নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ত্রি-বার্ষিক এ সম্মেলনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হবেন।

[৩] চট্টগ্রাম মহানগরীর প্রথম কমিটি হিসাবে ২০০১ সালের ১৪ জুলাই নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগে আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট এইচ এম জিয়াউদ্দিন, যুগ্ম আহ্বায়ক- কে বি এম শাহজাহান, সালাউদ্দিন আহমেদ ও আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন ২১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি গঠন হয়েছিল।

[৪] এরপর প্রায় ২১ বছর ধরে নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব পরিবর্তন হয়নি। এ অবস্থায় নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে সম্মেলনের নতুন কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়ছে বলর কেন্দ্রয় সূএে যানা যায়। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ত্যাগীদের দিয়ে নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের এবার ১০১ সদস্যের কমিটি গঠন করা হবে।

[৫] স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক মো. আজিজুর রহমান বলেন, চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন আগামী ২১ জুন করার বিষয়ে সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত হয়েছে মাত্র। সম্মেলনে দুটি অধিবেশন থাকবে এরমধ্যে কেন্দ্রীয় নেতারা এবং স্থানীয় নেতারা সম্মেলনে নেতৃত্ব নির্ধারণ করবে। সম্মেলনে সম্ভাব্য ৪৩৫ জন প্রার্থীদের বায়োডাটা ইতোমধ্যে সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে সম্মেলনের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত হলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সবাইকে জানিয়ে দেয়া হবে।

[৬] তবে নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট এইচ এম জিয়াউদ্দিন বলেন, সম্মেলনের দিন নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য সাবজেক্ট কমিটি গঠন করা হবে। কাউন্সিলরদের নিয়ে এই সাবজেক্ট কমিটি নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন। সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন । কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের মতামত নিয়ে কমিটি ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

[৭] দলীয় সূএমতে জানা গেছে, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হতে লড়াইয়ে আলোচনায় আছেন- সাবেক ছাএলীগ নেতা ও চসিক লালখান বাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল হাসনাত মো. বেলাল, সুজিত দাশ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আজিজুর রহমান আজিজ, এডভোকেট তসলিম উদ্দিন, আজাদ খান অভি, শাহেদ আলী রানা।

[৮] সম্মেলনে সভাপতি/সম্পাদক পদ প্রত্যাশী ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের লালখানবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল হাসনাত মো. বেলাল বলেন, আমি ২০০৫ সাল থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। দীর্ঘ ২১ বছর পর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন হচ্ছে। আশা করি কমিটিতে ত্যাগী ও নির্যাতিতদের মূল্যায়ন হবে। তিনি আরো বলেন, কমিটিতে আমাকে যদি মূল্যায়ন করা হয় তাহলে তৃণমূল পর্যায়ে দীর্ঘদিন যারা সংগঠনের জন্য শ্রম মেধা দিয়ে কাজ করেছে এবং যাদেরকে অতীতে আমরা নুন্যতম মূল্যায়ন করতে পারিনি সে সকল কর্মীদের নিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগকে ঢেলে সাজানোর চেষ্টা করব।

[৯] এছাড়া সভাপতি/সম্পাদক পদ প্রত্যাশী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সুজিত দাশ বলেন, আশা করি দল ত্যাগীদের মূল্যায়ন করবে। বিশেষ করে চট্টগ্রাম মহানগরে একটি আহ্বায়ক কমিটি এবং মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এবং স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় এবং বিভাগীয় কমিটিতে যারা আছেন তারা তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে আশা করি কমিটি উপহার দিবেন। সে ক্ষেত্রে আমাকে যেভাবে মূল্যায়ন করা হবে সে মুল্যায়নের প্রতি আমার সম্মান থাকবে এবং সংগঠনের জন্য কাজ করে যাব। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত