প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ঘুর্ণিঝড় ইয়াসে পদ্মার ডান তীর রক্ষা বাধেঁর তিন স্থান ক্ষতিগ্রস্ত: পানি উন্নয়ন বোর্ডের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ

মো. আল-আমিন: [২] নড়িয়া উপজেলার মোক্তারের চর, পৌরসভার শুভগ্রাম ও চন্ডীপুর এলাকায় হঠাৎ করেই স্লোব থেকে মাটি সরে গিয়ে প্রায় ১ শত ৩০ মিটার বাধেঁর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে করে বাধেঁর আশে পাশে থাকা রাস্তাঘাট স্থাপনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হুমকির মুখে পড়েছে। বাধেঁর ক্ষতিগ্রস্ত খবর পেয়ে শরীয়তপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ দ্রুত ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করে। এরপর সেখানে জিও ব্যাগ ফেলা হয়।

[৩] শুক্রবার ক্ষতিগ্রস্ত স্থান পরিদর্শন করেন পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য একেএম এনামুল হক শামীম।

[৪] শরীয়তপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডে উপ-সহকারী প্রকৌশলী আহম্মদ আলী ও অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার পদ্মা নদীর তীরে ১৪ শত ৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯ দশমিক ৩৫ কিলোমিটার বাধটি তৈরী করা হয়। এর পর গত বছর আর পদ্মা নদীতে ভাঙ্গেনি। সম্প্রতি এবার ঘুর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় পদ্মার ডান তীর রক্ষা বাধের নড়িয়া উপজেলার মোক্তারের চর ৫০ মিটার, পৌরসভার শুভগ্রাম ৩০ মিটার ও চন্ডীপুর ৫০ মিটার এলাকার স্লোবের মাটি সরে গিয়ে বাধের প্রায় ১৩০ মিটার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এদিকে বাধেঁর আশে পাশে থাকা রাস্তঘাট, স্থাপনা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও নড়িয়া উপজেলা শহর ঝুকির মধ্যে থাকে। খবর পেয়ে শরীয়তপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ দ্রুত সেখানে জিও ব্যাগ ফেলার ব্যবস্থা করে।

[৫] এব্যাপারে স্থানীয় ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফ বলেন, পানি বৃদ্ধির ফলে ব্লকের মাটি সরে বাঁধের ৩টি স্থানে ডেবে যায়। এজন্য আমরা পদ্মার পাড়ের মানুষ আতংকিত হয়ে পরি।

[৬] নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন বাদশা শেখ বলেন, পদ্মা নদীর পানি ৬ থেকে ৭ ফুট উচ্চতা বেড়ে যায়। প্রচণ্ড বাতাসে ঢেউয়ের তোরে স্লোবের মাটি কিছুটা সরে যায়। এরপর পানি উন্নয়ন বোর্ডকে বিচষয়টি জানালে তারা জিও ব্যাগে ডাম্পিং করে জায়গার ভাঙ্গন রোধ করে দেয়।

[৭] এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী এস.এম আহসান হাবীব বলেন, ঘুর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে পদ্মা নদীর পানি বেড়ে যাওয়ার কারণে স্লোবের মাটি সরে গিয়ে প্রায় ৩টি স্থানে প্রায় ১ শত ৩০ মিটার বেরি বাধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। খবর পেয়ে আমরা সেখানে জিও ব্যাগ ফেলে ঠিক করে দেই। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত