প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মধুমতী নদীর দু,পাড়ে দৃষ্টিনন্দন লাল ও হলদে রংয়ের কৃষ্ণচূড়া ফুল, আছে উপকারিতাও

আসাদুজ্জামান বাবুল : [২] জেলার চাপাইলে মধুমতী নদীর দু,পাড়ে ফুটেছে দৃষ্টিনন্দন আগুনলাল ও হলদে রংয়ের কৃষ্ণচূড়া ফুল। অপরুপ সুন্দর আগুনলাল ও হলদে রংয়ের কৃষ্ণচূড়া ফুলের সুবাশ নিতে প্রতিদিন সকাল থেকে কমপক্ষে রাত ১০টা পযন্ত পযটকদের পদচারনায় মুখোরিত হয়ে ওঠে নদীর উপর নির্মিত সেতুতে। নানান বয়সের মানুষকে সেলপি তোলা থেকে শুরু করে কৃষ্ণচূড়া গাছের ভেষজ উপকারিতা পেতেও ভীড় করতে দেখা গেছে।

[৩] কৃষ্ণচূড়া গাছের ভেষজ উপকারিতা: সম্পর্কে গোপালগঞ্জ আড়াইশ বেড হাসপাতালের হারবাল মেডিসিন, চম ও যৌন রোগ, স্ত্রী রোগ, নাক, কান ও গলার রোগের চিকিৎসার  বিশেষঞ্জ ডা, মো: আহমেদুল কবির বলেছেন, কৃষ্ণচূড়া একটি বৃক্ষ জাতীয় উদ্ভিদ । এই গাছ সেীন্দার্য্ বৃদ্ধির জন্য কাজে লাগে। এই গাছ চমৎকার পাতা পল্পব এবং আগুনলাল কৃষ্ণচূড়া-ফুলের জন্য প্রসিদ্ধ । কৃষ্ণচূড়া গাছের লাল-কমলা-হলুদ ফুল এবং উজ্জ্বল সবুজ পাতা একে অন্যরকম দৃষ্টিনন্দন করে তোলে ।

কৃষ্ণচূড়া শুষ্ক পত্রঝরা বৃক্ষের জঙ্গলে এটি পাওয়া যায়। পত্র ঝরা বৃক্ষ, শীতে গাছের সব পাতা ঝরে যায়। বাংলাদেশে বসন্ত কালে এ ফুল ফোটে। ফুলগুলো বড় চারটি পাপড়ি যুক্ত। পাপড়িগুলো প্রায় ৮ সেন্টিমিটারের মত লম্বা হতে পারে।

[৫] কৃষ্ণচুড়া জটিল পত্র বিশিষ্ট এবং উজ্জ্বল সবুজ। প্রতিটি পাতা ৩০-৫০ সেন্টিমিটার লম্বা এবং ২০-৪০ টি উপপত্র বিশিষ্ট। কৃষ্ণচূড়ার জন্মানোর জন্য উষ্ণ বা প্রায়-উষ্ণ আবহাওয়ার দরকার। এই বৃক্ষ শুষ্ক ও লবণাক্ত অবস্থা সহ্য করতে পারে। এই গাছ বাংলাদেশ সহ ভারত,  ক্যারাবিয়ান অঞ্চল, আফ্রিকা, হংকং, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, তাইওয়ান, দক্ষিণ চীনে জন্মে। কৃষ্ণচূড়া ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে ।

সন্ধিবাতের সমস্যায় কৃষ্ণচূড়া : প্রথমে কৃ্ষ্ণচূড়ার পাতা  সংগ্রহ করতে হবে । এরপর এটা পানির সাথে ফুটিয়ে সেই পানি খেলে সন্ধিবাত ভালো হয় ।

জ্বর সারাতে : কৃষ্ণচূড়া  পাতার রস কিরে নিয়ে এর সাথে মধু মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খেলে জ্বর ভালো হয়ে যায়।

শ্লেষ্মার সমস্যায় : কৃষ্ণচূড়া মূলের  ছাল প্রথমে শুকিয়ে গুড়া করে নিতে হবে । এবার পানের সাথে চিবিয়ে খেলে শ্লেষ্মাকে তরল করে বের করে দেয় ।

খুশকি দূর করতে : কৃষ্ণচূড়ার ফুল  পিষে নিতে হবে । এবার এটিকে গোসলের আগে মাথায় লাগালে খুশকিতে ভালো উপকার পাওয়া যাবে ।

স্বরভঙ্গ সারাতে : কৃষ্ণ-চূড়া পাতা চিবিয়ে খেলে স্বরভঙ্গ ভালো হয়ে যায় ।

পিত্তবৃদ্ধিতে : এর জন্য প্রথমে কৃষ্ণচূড়ার  পাতা ভেজে নিতে হবে । এরপর এটি নিয়মিত খেলে পিত্তবৃদ্ধিতে ভালো উপকার পাওয়া যায়। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত