প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পেছাতে পারে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা, অনলাইন পরীক্ষা নিয়ে শঙ্কা

শরীফ শাওন: [২] ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি এবং এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া হলেও করেনা সংক্রমণের কারণে বিগত বছর অটোপাসের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এবার সময় পেরিয়ে গেলেও পরীক্ষা নিয়ে সন্দিহান পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। তবে মন্ত্রণালয় এবং সংশ্লিষ্টদের দাবি, সময় পেছানো হলেও পরীক্ষার মাধ্যমেই ফল প্রকাশের সিদ্ধান্ত বহাল রয়েছে।

[৩] শনিবার বোর্ড কর্মকর্তা জানান, পাবলিক পরীক্ষা দুটির বিষয়ে দেশের ১১টি বোর্ড পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে। প্রশ্ন প্রণয়ন দীর্ঘ প্রক্রিয়া, ফলে এসকল প্রস্তুতিও সম্পন্ন করা হয়েছে। সরকার চাইলে ১৫ দিনের মধ্যে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে।

[৪] ঢাকা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, এসএসসি ৬০ ও এইচএসসি ৮৪ কর্মদিবসের পাঠদান পরিকল্পনা রয়েছে, সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে সিলেবাস। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই এই দুই পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে।

[৫] এসএসসি ও এইচএসসি বোর্ড পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়ার সক্ষমতা যাচাইয়ে দুটি ভিন্ন কমিটি তৈরি করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা ইতোমধ্যে কাজ প্রায় সম্পন্ন করেছে। তবে আইসিটি বিশেষজ্ঞদের মতে, শিক্ষার্থীদের ল্যাপটপ, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সংযোগ প্রয়োজন হবে।

[৬] এসকল বিষয় নিশ্চিত করা অসম্ভব জানিয়ে নেহাল আহমেদ বলেন, পৃথিবীর কোন দেশে বোর্ড পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়ার উদহারণ পাওয়া যায়নি। এসএসসি পরীক্ষার্থী সংখ্যা ২৩ লাখ ও এইচএসসি ১৮ লাখের বেশি। অভ্যন্তরিন ও এমসিকিউ পরীক্ষাগুলো এ প্রক্রিয়ায় নেওয়া সম্ভব হতে পারে। এছাড়াও সকল শিক্ষার্থীকে ল্যাপটপ ব্যবহারে প্রশিক্ষণ দিয়ে পরীক্ষা উপযোগী করাও সময়মাপেক্ষ বিষয়।

সর্বাধিক পঠিত