প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পুঠিয়ায় অপারেশন থিয়েটারে রক্তশূণ্যতায় রোগীর মৃত্যুর

আবু হাসাদ:[২] রাজশাহীর পুঠিয়ায় একটি ক্লিনিকে পিত্তথলি অপারেশন করার সময় রীতা রানী (৩৫) নামের এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ বলছেন, অপারেশনের সময় রক্তশূণ্যতা দেখা দিলে রোগীকে রক্ত দেওয়ার পর সে মারা গেছেন। ক্লিনিক মালিক ওই পরিবারকে আপোষ করানোর জন্য চেষ্টা করছেন।

[৩] তবে বিষয়ে এখনো পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি।মঙ্গলবার রাতে (১৮ মে) উপজেলা সদরে অবস্থিত বেসরকারি হাসপাতাল রায়হানা ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে।রীতা রানী উপজেলার ঝলমলিয়ার ঋষিপাড়া এলাকার গণেশ সরকারের মেয়ে এবং কুষ্টিয়া সদর এলাকার নফরকান্দী এলাকার নিখিল দাসের স্ত্রী।

[৪] ভুক্তভোগির স্বামী নিখিল দাস বলেন, গত দুই মাস আগে ওই ক্লিনিকে সিজারের মাধ্যমে আমাদের একটি বাচ্চা হয়েছে। ওই সময় ক্লিনিকের চিকিৎসক বলেছিলেন তার স্ত্রীর পিত্তথলিতে পাথর আছে। কিছুদিন পর আসলে তার অপারেশন করা হবে। সে অনুসারে মঙ্গলবার সকালে তাকে ওই ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যার সময় ক্লিনিকের লোকজন বলে তাকে রক্ত দিতে হবে।

[৫] জরুরি ভাবে রাজশাহী মেডিকেলে নেয়ার জন্য। আমরা মেডিকেল নিয়ে যাওয়ার পর সেখানকার ডাক্তার জানায় রোগী মারা গেছে। রাতে লাশ নিয়ে বাড়ি আসলে ক্লিনিক মালিক একজন সরকার দলীয় নেতার মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করেন। পরে লাশ সৎকার করাতে কিছু টাকা দিয়েছেন। বুধবার (১৯ মে) ভোরে পীরগাছা মহাশশ্মানে তাকে দাহ করা হয়েছে।

[৬] ক্লিনিক মালিক মখলেছুর রহমান রাজু বলেন, সার্জন ডা. বেলাল হোসেন ও ডা. বিধান কুমার ফৌজদার ক্লিনিকে অপারেশন করেছেন। অপারেশনের এক পর্যায়ে রোগীর রক্তের প্রয়োজন হয়। সে সময় তাকে রক্তও দেয়া হয়। কিন্তু ওই সময় রক্ত রোগীর শরীরে ব্লাড রিয়াকশন করে। যার কারণে তাকে রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে সে মারা যায়।

[৭] এ ব্যাপারে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, ক্লিনিকে রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি আমাদের জানা নেই। আর এ বিষয়ে কেউ থানায় অভিযোগও দেননি।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত