প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] লকডাউনে ঈদকে কেন্দ্র করে আন্তঃবাস চালুর নামে, রাতের অন্ধকারে চলছে দূর পাল্লার গাড়ি

মিনহাজুল আবেদীন, মাগুরা থেকে ফিরে: [২] ঈদকে জুড়ে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে পরিবহন সেক্টরে চলছে রমরমা ব্যবসা। এতে তেমন কোনও উদ্যেগ নেই প্রশাসনের। গাবতলী বাস টার্মিনালে গেলে খুব সহজেই বাংলাদেশের যে কোনও স্থানে যাওয়া যাচ্ছে।

[৩] সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, টেলিফোনের মাধ্যমে কিছু চক্র যাত্রীদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। প্রথমে যাত্রীদের নেয়া হয় গাবতলী। সেখান থেকে নেয়া হচ্ছে নির্দিষ্ট কোনও স্থানে। কোনও তৈল পাম্প বা খোলা ভাঙা গাড়ি রাখা জায়গাতে, কোনওভাবেই বোঝার উপায় নেই। সেখান থেকে কোনও গাড়ি ছাড়বে বা মানুষ উঠবে। প্রতিনিয়ত এভাবেই রাতে গাড়ি ছেড়ে যাচ্ছে, দূর পাল্লার উদ্দেশ্য।

[৪] নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন চালক জানান, লকডাউনে প্রতি রাতেই গাড়ি ছেড়ে যায়। এই সব গাড়ি মালিক সমিতির লোকজনের বেশি। তারা উর্ধতন লোকের সঙ্গে কথা বলে এক সঙ্গে সব গাড়ি ছাড়ে। পথে কোনও পুলিশ গাড়ি থামালে তাদের ৩-৪ হাজার টাকা দিলেই ছেড়ে দেয়া হয়।

[৫] পথ-যাত্রী মো. আল হেলাল বলেন, মানুষকে বিপদে ফেলে অতিরিক্ত বাস ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এক সিটে দুই জন করে মানুষ বসানো হচ্ছে। তারপরও ৫০০ টাকার ভাড়া নেয়া হচ্ছে ১৩০০-১৫০০ শ টাকা। চালক, সুপার ভাইজার, হেলপার ও বেশির ভাগ মানুষের মুখেই মাস্ক থাকে না। সম্পাদনা: মোহাম্মদ রকিব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত