প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জুড়ীতে আগুনে পুড়ে প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

স্বপন দেব: [২] মৌলভীবাজারের জুড়ীতে রোববার ( ১৬ মে) রাত ৮টার পরে উপজেলার চৌমুহনীতে করিম মিষ্টির বক্স তৈরীর দোকান থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত ঘটে। যা ছড়িয়ে পড়ে পাশ্ববর্তী গ্যাস সিলিন্ডারের গোদাম এবং পেট্রোলিয়াম জাতীয় দোকানে। এ অগ্নিকাণ্ডে ২ থেকে আড়াই কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির আশংকা করছে ক্ষতিগ্রস্থরা।

[৩] প্রায় দুই ঘণ্টায় কুলাউড়া, বড়লেখা এবং রাজনগরের ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিটের যৌথভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

[৪] প্রত্যক্ষদর্শীদের ধারণা, সিগারেটের অংশ থেকে আগুন করিম মিষ্টির বক্স তৈরীর দোকানে লেগে পর তা মুহুর্তের মধ্যে পাশ্ববর্তী আর এন পেট্রোলিয়াম দোকান ও শরীফ গ্যাস সিলিন্ডারের দোকানে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যায়। প্রথমে কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম আসলে তারা ঘন্টাখানেক কাজ করার পরও আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে না পেরে বড়লেখা ফায়ার সার্ভিসের আরেকটি টিম আসে। এরপর রাজনগরের ফায়ার সার্ভিসের টিম এসে তাদের সহযোগিতা করে।

[৫] আগুনে শরীফ গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান, আর এন পেট্রোলের দোকান ও করিম মিষ্টির বক্স তৈরীর দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে যায়, পাশ্ববর্তী ৫তলা নুর জলিল বিল্ডিং এর বেশির ভাগ অংশ ও পুড়ে যায়। আগুন লাগার সাথে সাথে মসজিদের মাইক থেকে বিল্ডিং এর সবাইকে বের হওয়ার আহ্বান জানানো হয়। এতে করে কোন মানুষের ক্ষতি হয়নি।

[৬] ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছিলেন জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মোঈদ ফারুক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান রুহুল ইসলাম, কুলাউড়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সাদেক কাউছার দস্তগীর, জুড়ী থানার ওসি সন্জয় চক্রবর্তী, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, বড়লেখা থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার।

[৭] ফায়ার সার্ভিস মৌলভীবাজারের উপ পরিচালক আব্দুল্লাহ হারুন পাশা বলেন, আগুনে কেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বা কিভাবে আগুন লেগেছে এটা তদন্ত করার পরই জানা যাবে। সম্পাদনা: হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত