প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চট্টগ্রামে চিহ্নিত চাঁদাবাজ সুলতান গ্রেফতার

রাজু চৌধুরী: [২] ইপিজেড থানাধীন দক্ষিণ হালিশহর সিমেন্ট ক্রসিং এলাকায় অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ চক্রের প্রধান সুলতান আহম্মদ (৪৫)‘কে চাঁদাবাজির অর্থসহ হাতেনাতে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

[৩] বুধবার (১২ মে) র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম সহকারী পরিচালক, সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মোঃ নূরুল আবছার জানান,  সুলতান হালিশহর, কলসী দিঘির পাড়, সিমেন্ট ক্রসিং, মাইলের মাথা এলাকার একজন শীর্ষ চাঁদাবাজ। তার নেতৃত্বে চাঁদাবাজ চক্রটি বিভিন্ন দোকান, ফুটপাত এবং পরিবহন সেক্টর ইত্যাদি থেকে বেশ কিছু দিন যাবৎ চাঁদাবাজি করে আসছে।

[৫] তার দাবিকৃত চাঁদার টাকা দিতে না পারলে সে ও তার বাহিনী দোকানদারদের দোকান থেকে বের করে তালা ঝুলিয়ে দিত। পরিবহন সেক্টরের মাইক্রোবাস, সিএনজি এবং ইজি বাইক চালকদের নিকট থেকে সে মাসোয়ারা ভিত্তিতে চাঁদা আদায় করত।

[৬] র‌্যাবের অনুসন্ধানে বিভিন্ন তথ্য পাওয়ার পর মঙ্গলবার রাতে মহানগরীর ইপিজেড থানাধীন দক্ষিণ হালিশহর সিমেন্ট ক্রসিং মসজিদের দক্ষিণ পার্শ্বে আজিজ মিয়ার মায়ের দোয়া ফুড্স হেভেন দোকানে গিয়ে ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকা আদায়ের সাথে সাথে তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে।

[৭] র‌্যাব-৭ কর্মকর্তা আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে, সে দীর্ঘ দিন যাবৎ ইপিজেড থানা এলাকার বিভিন্ন সেক্টর হতে প্রতি মাসে কয়েক লাখ টাকা চাঁদা আদায় করে আসছে।

[৮] আর ঈদ আসলে সুলতান চাঁদাবাজির মাত্রা বাড়িয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠে। সে কোনো পেশার সাথে জড়িত নয় কিন্তু প্রতিমাসে চাঁদাবাজির মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করে। চাঁদাবাজ সুলতানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম মহানগীর ইপিজেড থানায় ২০১১ সালে ০১ টি মাদক মামলা এবং ২০১৩ সালে একই থানায় চাঁদাবাজির মামলা রয়েছে। চাঁদাবাজির ঘটনায় গ্রেফতারকৃত সুলতানের বিরুদ্ধে ইপিজেড থানায় চাঁদাবাজির একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত