প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনা পলাতক ১০ জনের মধ্যে ৭ জন আটক জামিনে মুক্ত

জাহিদুল কবির: যশোর সদর হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যাওয়া ১০জনের মধ্যে ভারত ফেরত ৭ জনকে আটকের পর আদালত থেকে জামিমে মুক্তি পেয়েছেন। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহাদী হাসান শুনানী শেষে তাদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। এর আগে সোমবার (১০ মে) তাদের আটক দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ।

জামিন প্রাপ্তরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী ফাতেমা, যশোর শহরের পশ্চিম বারান্দিপাড়া এলাকার বিশ্বনাথ দত্তের স্ত্রী মণিমালা দত্ত , সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপপাড়া গ্রামের মিলন হোসেন , রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর গ্রামের নাসিমা আক্তার , খুলনা সদর উপজেলার বিবেকানন্দ , খুলনার পাইকগাছা উপজেলার ডামরাইল গ্রামের আমিরুল সানা ও খুলনার রূপসা উপজেলার সোহেল সরদার। আসামি পক্ষের আইনজীবী সৈয়দ কবীর হোসেন জনি বলেন, সংক্রমন অপরাধদমন আইনে তাদেরকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করে। তিনি ওই সাতজনকেই জামিনের জন্য আদালতে আবেদন জানান।

আদালত তা মঞ্জুর করে একই সাথে আগামী ৩০ জুন পরবর্তি দিন ধার্য করেন। এছাড়া অপর তিনজন অভিযুক্ত ভারতফেরত সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার শেফালি রানী সরদার , যশোর সদর উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের একরামুল কবীরের স্ত্রী রুমা (৩০) ও যশোর শহরের ওয়াপদা গ্যারেজ এলাকার ভদ্র বিশ্বাসের ছেলে প্রদীপ বিশ্বাস (৩৭) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেলে তাদেরও গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে পুলিশের পক্ষথেকে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ ও ২৪ এপ্রিল ভারত ফেরত করোনা আক্রান্ত কিছু পাসেপার্ট যাত্রী যশোর জেনারেল হাসপাতালে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। এরপর হাসপাতাল থেকে ৭ ভারত ফেরত করোনা আক্রান্ত ও স্থানীয়ভাবে আক্রান্ত তিনজন মোট ১০জন পালিয়ে যান। বিষয়টি ২৬ এপ্রিল সংবাদ মাধ্যমে প্রচার হওয়ায় তোলপাড় শুরু হয়। এরপর ওইদিন দিবাগত রাতের মধ্যে পলাতক সকলকে শনাক্ত করে হাসপাতালে ফিরিয়ে আনা হয়। ওই ঘটনায় গত ৮ মে শনিবার যশোর কোতোয়ালী থানায় মামলা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত