প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনাকালীন সময়ে সরকারের সহায়তা না পেয়ে উপজেলা পর্যায়ের সাংবাদিকদের ক্ষোভ

স্বপন দেব : [২] করোনাকালীন সময়ে গত এক বছরে দেশের বিভিন্ন সেক্টরের মতো সরকার সাংবাদিকদেরও আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। তবে এ প্রণোদনার ছিটেফোঁটাও পৌঁছায়নি মফস্বল সাংবাদিকদের মধ্যে। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা সরকারি আর্থিক সহায়তা না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

[৩] জানা যায়, করোনা মহামারীর কারনে সরকার গত বছরের ২৬ মার্চ থেকে ছুটি ঘোষণা করে। এরপর থেকে জেলা পর্যায়ে লকডাউনও ঘোষণা করা হয়। এ সময়ে প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি ঝুঁকি নিয়েও সাংবাদিকরা দায়িত্ব পালন করেন।

[৪] মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী কমলগঞ্জ উপজেলার জাতীয় দৈনিকে কর্মরত একাধিক সাংবাদিকরা প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি মাঠেঘাটে দায়িত্ব পালন করেন। মানুষের মধ্যে ব্যাপক জনসচেতনায় সাংবাদিকদের মূখ্য ভূমিকা ছিল।

[৫] সরকার কর্মহীন মানুষদের জন্য খাদ্য সহায়তাসহ বিভিন্ন ধরণের সহযোগিতা প্রদান করে। পরবর্তীতে বিভিন্ন সেক্টরের মতো সাংবাদিকদের মধ্যেও আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। তবে এসব সহায়তা করোনার প্রথম ধাপে জেলা পর্যায়ে সাংবাদিকের মধ্যে প্রদান করার পর এবার করোনার ২য় ধাপে আবারো জেলা পর্যায়ের সাংবাদিকদের মধ্যে আর্থিক সুবিধার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। অথচ উপজেলা পর্যায়ে সাংবাদিকদের মধ্যে কেউই এখন পর্যন্ত তা তা পাননি। ফলে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

[৬] কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. মোস্তাফিজুর রহমান ও বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কমলগঞ্জ ইউনিটের সভাপতি নূরুল মোহাইমীন মিল্টন বলেন, করোনাকালীন সময়ে জীবনের ঝূঁকি নিয়ে কমলগঞ্জের জাতীয় দৈনিকের সাংবাদিকরা সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করেছেন। মাঠে, ঘাটে সাংবাদিকরা সরব ভূমিকা পালন করেছেন। অথচ সরকার আর্থিক সহায়তা ঘোষণা করলেও উপজেলা পর্যায়ে যারা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন তাদের মধ্যে কোন সহায়তা বা প্রণোদনা প্রদান করা হয়নি। তারা আরও বলেন, যারা ঘরে বসেছিলেন জেলা পর্যায়ের এমন সাংবাদিকরাও প্রণোদনা পেয়েছেন।

[৭] আর মাঠে, ঘাটে কাজ করেও সরকারের আর্থিক সহায়তা বা প্রণোদনা বঞ্চিত উপজেলা সাংবাদিকরা।

[৮] মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যে দেশব্যাপী সাংবাদিকদের সহযোগিতায় সম্প্রতি ১০ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনা সংক্রমণের এই দুঃসময়ে দেশব্যাপী সাংবাদিকদের সহযোগিতার জন্য ‘সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট’কে এই ১০ কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

[৯] এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাফর ওয়াজেদ বলেন, ২য় ধাপে জেলা পর্যায়ের সাংবাদিকদের সহায়তার জন্য আবেদন যাচাই বাচাইয়ের কাজ চলছে। উপজেলা পর্যায়ে সাংবাদিকদের জন্য এখনও কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। আমাদের লোকবলও কম। পরবর্তী ধাপে উপজেলা পর্যায়ের সাংবাদিকদের আর্থিক সহায়তা করা হবে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত