প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আবারও রাজধানীতে কালবৈশাখীর আঘাত, চরম ভোগান্তিতে রাস্তায় থাকা মানুষেরা

আতাউর অপু : সোমবার দিবাগত ১২টার দিকে মিনিটের দিকে এ ঝড় শুরু হয়। ঝড়ের সঙ্গে বৃষ্টিও হয়। এর আগে গত রাতেও ঢাকায় ঝড়বৃষ্টি হওয়ায় কমে এসেছিল রাজধানীর তাপপ্রবাহ।

তীব্র গতির বাতাসের সঙ্গে মুষলধারে বৃষ্টিতে কেঁপে উঠছে বাসাবাড়ির জানালার কাচ। রাতে অনেকে ঘুমিয়ে পড়লেও বাতাসের ভয়ঙ্কর শনশন আওয়াজে ভেঙে যায় ঘুম। রাস্তায় থাকা মানুষেরা পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মো. শাহিনুল ইসলাম বলেন, কত গতিতে ঝড় হচ্ছে তা বোঝা যাবে দিবাগত রাত তিনটার দিকে। এ ঝোড়ো হাওয়া দিবাগত রাত ১২টার দিকে ঢাকার দিকে আসে। এরপর থেকে রাজধানীসহ এর আশেপাশের এলাকায় দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। ঝড়ের স্থায়িত্ব ঘণ্টাখানের মতো হতে পারে। তবে এ সময়ের আবহাওয়ার অবস্থা যেকোনো সময় পরিবর্তন হতে পারে।

রাত ১১টার দিকে আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, রংপুর, রাজশাহী, খুলনা, ময়মনসিংহ, ঢাকা, চট্টগ্রাম, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের জেলাগুলো অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া আগামী ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

রাজধানীতে ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রবৃষ্টি

পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ার অবস্থায় বলা হয়েছে, তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে। আজ সন্ধ্যায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতা ছিল ৫১ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে চাঁদপুরে ৪৯ মি.লি.। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সিনপটিক অবস্থায় বলা হয়েছে, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশে অবস্থান করছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত