প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আনিস আলমগীর: সাংবাদিক হয়ে আমরা নিজেদের সঙ্গে নিজেরা প্রতারণা করছি না পাঠকদের সঙ্গে?

আনিস আলমগীর: সত্য-মিথ্যা সেটা পরের ব্যাপার। অস্বাভাবিক জীবনযাত্রা, অস্বাভাবিক মৃত্যু এক তরুণীর। থানায় মামলাও হয়েছে। দেশের নামকরা শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরার এমডি সায়েম সোবহানকে আসামি করা হয়েছে। নিউজ করার জন্য এটুকুই যথেষ্ট ছিলো। তার নিজের পত্রিকাগুলোতেও এই সংবাদ গেলে আমি দোষের কিছু দেখি না। তিনি অভিযুক্ত, দোষী প্রমাণিত নন। কিন্তু প্রথম আলো আসামির নাম মুখে না এনে নিউজ করেছে। বাংলাদেশ প্রতিদিন নামের টয়লেট পেপারটিতো নিউজই করেনি। অথচ এই দুই পত্রিকা নাকি বাংলাদেশের শীর্ষ পত্রিকা। সাংবাদিক হয়ে আমরা নিজেদের সঙ্গে নিজেরা প্রতারণা করছি না পাঠকদের সঙ্গে?

নির্বাচিত মন্তব্য : আলী নিয়ামত- বিকৃত এবং বিক্রিত সাংবাদিকতা চলছে? তাইতো দেশের এ অবস্থা! যে দেশে ১০০ কোটি টাকা করোনা – গবেষণার জন্য বরাদ্দ, অথচ পড়ে থাকে? একজনও নেই? -ধন্যবাদ, অন্তত: দুধের স্বাদ ঘোলে মিটলো, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এটাই কম কীসে? [২] কামাল এম মোস্তফা : সাহসী সাংবাদিক আনিস আলমগীর । টয়লেট পেপারের কুশীলবদের পেটের সাইজ বলে দেয় তারা আরাম আয়েশে চোখ বুজে আছে। তাদের দিবাস্বপ্নে চপেটাঘাত করার সাহস অনেকেরই নেই। কারণ তারা ক্ষমতার চেয়ারের পায়া ধরে বসে আছে। আহারে কতো নীতি বাক্য আজ তাদের মুখে। ১/১১ সময়ে তাদের দালালি আজো ভুলিনি।

[৩] রাজেস পাল : ভাইয়া কিছুই হবে না। মাঝখান থেকে আমরা কিছু উকিল, পুলিশ, সাংবাদিক দুপয়সা কামিয়ে নেবো। ফরেনসিক ডাক্তার রিপোর্ট দেবেন আত্মহত্যা বলে। ব্যাস, কেইস ক্লোজড। চট্টগ্রামের জিবরান তায়েবী মার্ডার কেইসের কথা নিশ্চয়ই মনে আছে আপনার? ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত