প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রধানমন্ত্রীকে বাংলাদেশ অর্গানিক প্রোডাক্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স এসোসিয়েশনের চিঠি

শিমুল মাহমুদ: শুক্রবার বাংলাদেশ অর্গানিক প্রোডাক্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স সোসিয়েশন(বিওপিএমএ) সভাপতি আব্দুস ছালাম প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে এ চিঠি পৌঁছে দেন।

চিঠিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসে একজন কৃষক, একজন শ্রমিক, একজন রিকশাওয়ালা, একজন ফকির এমনকি একজন পাগলও মরেননি। যারা আক্রান্ত হচ্ছেন, মারা গেছেন বা মারা যাচ্ছেন, তা নিয়ে গবেষণা করা এবং জাতিকে জানানো জরুরী।

বিওপিএমএ মনে করে, ক. যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, মারা গেছেন তারা সম্ভবত অবৈজ্ঞানিক (অলস / বিলাসী / অতিবিলাসী) জীবন যাপন করতেন।

খ. জীবন ধ্বংসকারী মিনিকেট চাল, প্যাকেটের সাদা আটা, ফার্মের বিষাক্ত ডিম, মুরগী এবং পশু মাংস, চাষ করা বিষাক্ত মাছ, কৃত্তিম বিষাক্ত দুধ, বিষাক্ত সব্জি ও ফল, পান, বিড়ি, সিগারেট, জর্দা, মদ প্রভৃতি চোখ জিহবা, মন ও পেট ভড়ালেও শরীরের কোন উপকারে আসছে না। এ সব অসার খাদ্যের কারণে শরীরে কোন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমুনিটি নাই। যা মানবদেহ এবং পরিবেশের জন্য ক্ষতিকারক, তাই হারাম। উপরের পণ্যগুলো হালাল না হারাম, বিচার করা জরুরী।

গ. ইসলামী জীবন-বিধান না মানা ঃ নিশ্চিত যে, ইসলামী জীবন-বিধান থেকে সরে আসার কারণেই আজকের এ করোনা এবং মৃত্যু।
ঘ. রোদে পরিশ্রম না করা ঃ রোদে কাজ বা পরিশ্রম না করার কারণে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমুনিটি নাই।
ঙ. প্রাকৃতিক খাদ্য এবং ভেষজ চিকিৎসা পদ্ধতিকে ঘৃণা অবজ্ঞা করা, অহংকার বা মূর্খতা অথবা ফুটানিবশত প্রাকৃতিক খাদ্য এবং ভেষজ চিকিৎসা পদ্ধতিকে ঘৃণা বা অবজ্ঞা করা।

তথাকথিত করোনা ভাইরাস- হতে পারে একটি ভাইরাস। পৃথিবীতে লক্ষ-কোটি ভাইরাস থাকতে পারে বা আসতে পারে। আর এ লক্ষ-কোটি ভাইরাস প্রতিহত করার জন্য পৃথিবী বিখ্যাত ল্যাবরেটরীতে পরিক্ষীত সবচেয়ে বড় এ্যান্টি-ভাইরাস আমাদের প্রতিটি ঘরেই আছে। এটি পেতে খেতে বা ব্যবহার করতে কোন পয়সা লাগে না।

এমতাবস্থায়, উলেখিত ৫টি পয়েন্টস বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার আদেশ দেয়ার জন্য আপনাকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। তাহলে ১০০% করোনামুক্ত হেলদি, ওয়েলদি এন্ড ওয়াইজ বাঙ্গালি জাতি প্রতিষ্ঠা পাবে অবশ্যই অবিলম্বে।

 

সর্বাধিক পঠিত