প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পুতিন চিরদিন ক্ষমতায় থাকতে চান, আদালতে অভিযোগ করলেন নাভালনি

সালেহ্ বিপ্লব: [২]কারাগার থেকে ভার্চুয়ালি আদালতে হাজিরা দেন রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সই নাভালনি। বিবিসি

[৩] এমনিতেই অনেকটা কৃশকায় দেখাচ্ছিলো পুতিনের কড়া এই সমাালোচককে। ন্যাড়া মাথায় গজানো ছোট ছোট চুলে তাকে অনেকটা বিধ্বস্ত মনে হচ্ছিলো।

[৪] কারারুদ্ধ হওয়ার পর থেকেই তিনি অভিযোগ করে আসছেন, রাতে তাকে ঘুমাতে দেয়া হচ্ছে না। এক ঘণ্টা পর পর ক্যামেরার সামনে গিয়ে নাভালনিকে দেখাতে হয় তিনি সেলে আছেন। ঘুমহীনতার পাশাপাশি ডান পায়ের প্রচণ্ড ব্যথাও তাকে কাহিল করে ফেলেছে, আইনজীবীদের মাধ্যমে একাধিকবার জানিয়েছেন।

[৫] আদালতকে তিনি জানান, কারাগারে যাওয়ার পর থেকেই তার ওজন কমছে, এখন সেটা ৭২ কেজিতে নেমে এসেছে।

[৬] আড়াই বছরের কারাজীবনে এই প্রথম জনসমক্ষে এলেন নাভালনি, যদিও তা ভার্চুয়াল মাধ্যমে। তার কণ্ঠস্বর ছিলো আগের যে কোনও সময়ের চেয়ে বলিষ্ঠ।

[৭] প্রেসিডেন্ট পুতিনকে ‘ন্যাংটো রাজা’ হিসেবে অভিহিত করেন নাভালনি। তার অভিযোগ, পুতিন জনগণের টাকা লুটে খেয়েছেন। রাশিয়ার মানুষকে দাসে পরিণত করেছেন।

[৮] মস্কোর আরেকটি আদালতে নাভালনির সব রাজনৈতিক সংগঠন নিষিদ্ধ করার একটি আবেদনের ওপর শুনানি চলছে। আবেদনে তাকে চরমপন্থী হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে।

[৯] রাশিয়ার প্রসিকিউটর জেনারেল গত সোমবার নাভালনির সব অফিসের কর্মকাণ্ড স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন। এমনকি তার দুর্নীতিবিরোধী ফাউন্ডেশনের (এফবিকে) কর্মকাণ্ডের ওপরও কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।

[১০] আদালত কোনও সিদ্ধান্ত দেওয়ার আগেই এ ব্যাপারে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিয়েছেন নাভালনির সমর্থকরা। তার ডান হাত বলে পরিচিত লিওনিদ ভলকভ জানান, এরই মধ্যে নাভালনির ৩৫টির মতো অফিস বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্টাফ ও সমর্থকদের গ্রেপ্তার হওয়া থেকে রক্ষা করতে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

[১১] এসব অফিস করা হয়েছিলো ২০১৭ সালে, যখন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন নাভালনি। কিন্তু পুতিনের সরকার তাকে নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগই দেয়নি।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত