প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঈদে মুক্তির জন্য ‘বিদ্রোহী ও সৌভাগ্য’ ছবির আবেদন জমা পড়েছে প্রযোজক পরিবেশক সমিতিতে

ইমরুল শাহেদ: ঈদের বাকি আর মাত্র দুই সপ্তাহ। সাধারণত এ সময়টাতে ঈদে ছবি মুক্তি দেওয়ার হিড়িক পড়ে যায়। এমন কি প্রযোজক পরিবেশকদের মধ্যে ঠেলা-ধাক্কা শুরু হয়ে যায়, কে কতটি সিনেমা হল বুকিং দিবেন। কিন্তু মহামারির এ সময়টাতে সবাই যেন চুপসে গেছেন। প্রযোজক পরিবেশক সমিতি সূত্রে জানা গেছে, ঈদ মুক্তির জন্য এ পর্যন্ত দুটি ছবির আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে রয়েছে শাপলা মিডিয়ার ‘বিদ্রোহী’ ও অমি বনি কথাচিত্রের ‘সৌভাগ্য’।

অন্য প্রযোজক পরিবেশকরা নীরব থাকার কারণ হলো, দেশে এখনো চলছে ম্যুভমেন্টে নিষেধাজ্ঞা। যখন উঠবে তখন আর ঈদের বেশিদিন বাকি থাকবে না। তখন কয়টি সিনেমা হল খোলা থাকবে। দর্শকরা কতোটা সিনেমা হলে আসতে আগ্রহী হবেন ইত্যাদি। প্রযোজক পরিবেশক সমিতিতে এখন পর্যন্ত আবেদন না করলেও হিরো আলম ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন একটি সিনেমা হলে হলেও তিনি ‘টোকাই’ ছবিটি মুক্তি দিবেন। শাকিব খান ‘অন্তরাত্মা’ ছবিটির কাজ শেষ করে দিয়েছেন ঈদ রিলিজের জন্যই। এছাড়া ঈদ রিলিজের জন্য আরো রেডি আছে ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘শান’ এবং ‘বিক্ষোভ’।

তবে বিদ্রোহী ও বিক্ষোভ ছবির প্রযোজক সেলিম খান আগে হল মালিকদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান। পরিস্থিতি অনুকূল থাকলে তিনি বিদ্রোহী মুক্তি দিবেন। অন্তরাত্মা ছবির প্রযোজক ড. সোহানী হোসেন বলেছেন, কোভিড প্রকোপের কারণে শুটিং পরবর্তী কাজ থেমে আছে। ছবিটি ঈদে মুক্তি দেওয়া সম্ভব নাও হতে পারে। তবে ছবিতে শাকিব খান থাকলে যে কোনো সময় ছবি মুক্তি দেওয়া যায় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমার প্রযোজক ও পরিচালকদের একজন সানী সানোয়ার বলেছেন, সিনেমা হল খোলা থাকলেও ছবি মুক্তি দিতে পারবো কিনা বুঝতে পারছি না। সবকিছু নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির উপর। ‘শান’ ছবির প্রযোজক ও কাহিনিকার আজাদ খান মনে করেন, আগে মানুষের জীবন ও জীবনের নিরাপত্তা; পরে বিনোদন। এদিকে সিনেমা হল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন উজ্জল বলেন, ঈদে সিনেমা হল খোলা নাকি বন্ধ থাকবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে এখনও কয়েকদিন সময় লাগবে। তবে আমরা চাই সিনেমা হল খোলা থাকুক।

সর্বাধিক পঠিত