প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরগুনা জেলাজুড়ে খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে!

অমল তালুকদার : বরগুনা জেলাজুড়ে ডায়রিয়া পরিস্থিতির সংক্রমাবনতি দেখা দেয়ায় মানুষ যখন শঙ্কিত ঠিক তখনই এ অঞ্চলে খাবার পানির তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। প্রতিবছর পুরো এপ্রিল মাস জুড়ে এঅঞ্চলে সুপেয় পানির চরম সংকট লেগে থাকে ।

বরগুনার অন্যান্য উপজেলায় গভীর নলকূপ স্থাপন করা গেলেও পাথরঘাটার কাঠালতলী, চরদুয়ানী ও সদর ইউনিয়ন সহ বেশকয়েকটি এলাকায় কোন রকমের খাবার পানির স্থায়ী সমাধান করা যাচ্ছে না। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন এনজিও পানি শোধন করে এই অঞ্চলের গণমানুষের চাহিদা মেটাবার চেষ্টা করলেও তা বড়ই অপ্রতুল।

অস্থায়ীভাবে ভুক্তোভূগিদের পানির তৃষ্ণা মেটাবার জন্যে বুধবার থেকে ভ্রাম্যমান একটি গাড়ি সাড়ে ৩ হাজার লিটার নিরাপদ সুপেয় পানি নিয়ে ছুটে চলছে গৃহস্থের দোরগোড়ায়।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এঅঞ্চলে ঠিক এই সময়টায় ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নিম্নগামী থাকে। এ কারণে পুকুর ডোবা নালা দিঘিসহ সর্বত্র পানিশূন্যতা দেখা দেয়।

খড়ার কবলে পরে গোটা উপকূল। খড়া বন্যার এই দূর্যোগ থেকে জীবন ও সম্পদ রক্ষায় সরকারের পাশাপাশি সকল মানুষ ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করলে অনেকাংশে এদূর্যোগ কাটিয়ে ওঠা সম্ভব বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

বিষয়টি প্রসঙ্গে পাথরঘাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা গোলাম কবির বলেন,পানীয় জলের সংকট কাটাতে ৪৭টি সরকারি পুকুর সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলছে ।

ভোক্তাদের পক্ষে ঠিকাদার দুলাল মিয়া বলেন,পাথরঘাটা পৌরসভার অধিকাংশ মানুষের সুপেয় পানির জন্য মডেল স্কুল সংলগ্ন রিজার্ভ পুকুরই একমাত্র ভরসা।কিন্তু পুকুরটি রক্ষণাবেক্ষণের কোন ব্যবস্থা না থাকায় খাবার পানির সংকট আরো তীব্র হচ্ছে।

এদিকে পাথরঘাটা জনসাস্থ প্রকৌশল অফিস এর উপসহকারী প্রকৌশলী দোলা মল্লিক বলেন, বর্তমান সময়ের এই বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠার জন্য আমরা বিনামূল্যে প্রতিদিন নিরাপদ পানি গাড়িতে পৌছে দিচ্ছি। এ অবস্থা থেকে উত্তরণ না হওয়া অবধি আমাদের কর্মসূচি চলমান থাকবে।

এই অঞ্চলের মানুষ খাবার পানির টেকসই বা স্থায়ী সমাধান খুঁজে বের করার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের ঊর্ধ্বতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত