প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বেতন ভাতা নিয়ে অসন্তোষ, কেন্দ্রীয় চুক্তিতে স্বাক্ষর করেননি লঙ্কান ক্রিকেটাররা

স্পোর্টস ডেস্ক: [২] বেতন-ভাতা নিয়ে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের মধ্যে অসন্তোষ চলছে। এর ফলে কেন্দ্রীয় চুক্তিতেও সাক্ষর করেননি তারা। এমনটা চলতে থাকলে অনেক ক্রিকেটারই দেশের হয়ে খেলার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন শ্রীলঙ্কার ইংরেজী পত্রিকা দ্য আইল্যান্ড।

[৩] লঙ্কান ক্রিকেটাররা এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে। এই সিরিজের আগেই ক্রিকেটারদের চুক্তি সই করতে বলা হয়েছিল। যদিও ক্রিকেটাররা চুক্তি সাক্ষর করেননি। কেন্দ্রীয় চুক্তি না হওয়ার ফলে গত জানুয়ারি থেকেই চুক্তিহীন অবস্থায় আছেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা।

[৪] এই সমস্যার মূলে রয়েছে বেতন কাঠামোর পরিবর্তন। নতুন চুক্তিতে ক্রিকেটারদের বেতন অনেকটাই কমিয়ে দেয়া হয়েছে। আগের চুক্তি অনুযায়ী একজন উপরের সারির ক্রিকেটারের বছরে আয় ছিল ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার। এখন সেটা নেমে আসতে পারে মাত্র ৪৫ হাজার ডলারে।

[৫] এমনটা হলে সবচেয়ে বড় ঝুঁকিতে পড়বেন শুধু এক ফরম্যাটে খেলা ক্রিকেটাররা। তিন ফরম্যাটেই খেললে তাদের আয় ১ লাখ ডলারে যেতে পারে। এর আগে চুক্তির বাইরেও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে আলাদা ভাতা পেতেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা। এবার সেই ভাতাও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

[৬] আগের চুক্তির নিয়ম অনুযায়ী ৪০ টেস্ট খেলা ক্রিকেটারের ভাতার পরিমাণ হতো ৭৫০ ডলার। ৬০টির বেশি টেস্ট খেলা ক্রিকেটারের ভাতাটা বেড়ে দাঁড়াত ১০০০ ডলার, ৮০ টেস্ট খেলা ক্রিকেটারের ২০০০ ডলার। এবার সেই সুবিধা বাদ দেয়ার অসন্তোষ দানা বেঁধেছে ক্রিকেটারদের মধ্যে।

[৭] এমন অবস্থায় ক্রিকেটাররা আইনি ব্যবস্থারও সাহায্য নিতে পারেন। কদিন আগেই এসএলসির ক্রিকেট পরিচালক টম মুডি সম্প্রতি এক টেলিকনফারেন্সে কেন্দ্রীয় আর্থিক চুক্তির বিভিন্ন দিক তুলে ধরেছেন। দ্য আইল্যান্ডকে এক ক্রিকেটার জানিয়েছেন, সেই কফারেন্সে ক্রিকেটারদের অনেক প্রশ্নের উত্তরই দিতে পারেননি মুডি। – ক্রিকফ্রেঞ্জি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত