প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] স্কুল ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, থানায় মামলা

ফরিদুল মোস্তফা: [২] মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউপিস্থ ১নং ওয়ার্ড তথা চালিয়াতলীর উত্তর নলবিলা এলাকায় এক স্কুল ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার আবদুল গফুর এর পুত্র নয়ন মনি (২৬) এর বিরুদ্ধে।

[৩] এনিয়ে গত ২১ এপ্রিল বুধবার ধর্ষিতার পিতা বাদী হয়ে আব্দুল গফুরের পুত্র নয়ন মনিকে (২৬) কে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মহেশখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

[৪] ২০২০ সালের ১৫ ডিসেম্বর বিকাল অনুমানিক ৪ টার সময় মেয়ের বসতবাড়িতে এই ঘটনাটি ঘটেছে বলে এজাহার সূত্রে জানা যায়।

[৫] ধর্ষিতার পিতা বলেন- আমার মেয়ে চালিয়াতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী। আমার এলাকার আবদুল গফুর এর বখাটে পুত্র নয়ন (২৬) আমার পরিবারের লোকজনের অগোচরে আমার মেয়ের সাথে ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং আমার মেয়েকে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে যৌন মিলন করার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু আমার মেয়ে বিবাহ বহির্ভূত যৌন মিলন করিতে অনিহা প্রকাশ করিলে উক্ত লম্পট নয়ন নানা ভাবে শপথ করিয়া আমার মেয়েকে বিবাহ করিবে বলিয়া প্রতিশ্রুতি দিত।

[৬] এর এক পর্যায়ে আমার বাড়ির লোকের অনুপস্থিতির সুবাদে ২০২০ সালের ১৫ ডিসেম্বর বিকাল অনুমানিক ৪ টার সময় লম্পট নয়ন চালিয়াতলীস্থ আমার বসত বাড়িতে গিয়ে আমার মেয়েকে বিবাহ করিবে বলে শপথ করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এর পর থেকে আমার মেয়েকে বিবাহের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিভিন্ন তারিখ, সময় ও স্থানে আমার মেয়ের সাথে ধর্ষণ করে। আমার মেয়ে বিবাহের জন্য তাগিদ দিলে খুব তাড়াতাড়ি বিবাহ করিবে বলে আশ্বাস দিলেও পরবর্তীতে আমার মেয়েকে বিবাহ না করে তালবাহানা শুরু করে। আমি লম্পট নয়নের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চাই যাতে অন্য কোন মেয়ের সাথে এরূপ আচরণ করতে না পারে।

[৭] এ বিষয়ে অত্র ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লিয়াকত আলির সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ঘটনাটি সত্য। আমি এলাকার সর্বস্তরের লোকজনের পক্ষ থেকে ঐ দুশ্চরিত্র যুবক নয়নের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি চাই।

[৮] মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল হাই মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শীঘ্রই আসামিকে গ্রেপ্তারপূর্বক আইনের আওতায় আনা হবে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত