প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জকিগঞ্জে বিয়ের আসরে মারামারি, থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

রহমত আলী: [২] সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের আসরে বরকে দেয়া কনে পক্ষের উপহার সামগ্রীর তালিকা নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে কনের পিত্রালয়ে মারামারি ঘটনা ঘটে। এতে বর ও কনে পক্ষের ১০ জনের মতো আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) জকিগঞ্জ থানায় বর ও কনে পক্ষ পাল্টাপাল্টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

[৩] জানা যায়, জকিগঞ্জ উপজেলার কলাকুটা (সারংদেব) গ্রামের আব্দুস সবুরের মেয়ে শাহানা বেগমের সঙ্গে বুধবার (৭ এপ্রিল) একই উপজেলার বারগাত্তা গ্রামের শফিকুর রহমানের ছেলে নেজাম উদ্দিনের ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক আক্দ হয়। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) ইফতারের সময় বর নেজাম উদ্দিন করোনাকালীন লকডাউনের কারনে সীমিত পরিসরে লোকজন নিয়ে কনে তুলে নিয়ে যেতে কলাকুটা (সারংদেব) গ্রামে শশুরালয়ে আসেন।

[৪] এ সময় কনে পক্ষের লোকজন বিবাহে উপহার হিসেবে দেয়া মালামালের তালিকায় বরকে স্বাক্ষর করতে বললে বর মূল কপি নিয়ে আসতে বলেন। এনিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি শুরু হলে স্থানীয়দের সহযোগিতায় কনে ছাড়াই বাড়ি ফেরেন বর নেজাম উদ্দিন ও তার পরিবারের লোকজন।

[৫] এতে বর নেজাম উদ্দিন (২৫), বরের পিতা- শফিকুর রহমান (৭০), বরের ভাই কায়েস আহমদ (২৬), রুবেল আহমদ (২০), কাওছার আহমদ, বোনের জামাই দেলোয়ার হোসেন (২৮), ফখর উদ্দিন (৩০) সহ কনে পক্ষের ৪/৫ জন আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন। তবে কনে পক্ষের আহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। ঘটনার পর স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে জকিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করেন।
[৬] এ ঘটনায় বর নেজাম উদ্দিন বাদী হয়ে শশুর বাড়ির লোকজনকে আসামী করে জকিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অপরদিকে শশুর আব্দুস সবুর বাদী হয়ে বরের পরিবারের লোকজনকে আসামী করে জকিগঞ্জ থানায় পাল্টা লিখিত অভিযোগ করেন। এনিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্ঠি হয়েছে।

[৭] এ বিষয়ে উভয় পক্ষের অভিযোগ তদন্তের দায়িত্বে থাকা জকিগঞ্জ থানার এসআই আমিরুল শিকদার বলেন, আমি উভয় পক্ষের অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। উভয়পক্ষের মধ্যে বিষয়টি আপোষ নিষ্পত্তি না হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত