প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ১১ অভিযানে ৩৩ মামলায় ১৮৩৫০ টাকা অর্থদণ্ড

রাজু চৌধুরী: বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ১১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে দিনব্যাপী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন এবং ৯০০ মাস্ক বিতরণ করেন।

এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজমা বিনতে আমিন নগরীর পাঁচলাইশ বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় অভিযানে ০২টি মামলায় ১০০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এ সময় অধিকাংশ সাধারণ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে পরামর্শ দেন এবং সচেতনতার লক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল হাসান নগরীর পতেঙ্গা ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা কালে ০১ টি মামলায় ২০০টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সচেতনতার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিবেদিতা চাকমা নগরীর খুলশী বায়েজিদ ও চান্দগাও এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ০৮ টি মামলায় ২৮৫০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও সর্বাত্মক লকডাউন মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষে মাস্ক বিতরণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামনুন আহমেদ অনিক নগরীর খুলশী বায়েজিদ ও চান্দগাও এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ০৩ টি মামলায় ৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং লকডাউন ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুমা জান্নাত নগরীর কোতোয়ালী সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ০৫ টি মামলা দায়ের করে ৫০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মাসুদ রানা শহরের পাহাড়তলী হালিশহর ও আকবর এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ৪টি মামলায় ৬৫০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও সাধারণ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে দেখেন এবং জেলা প্রশাসন, চট্টগ্রামের পক্ষ হইতে মাস্ক বিতরণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান নগরীর কোতোয়ালী সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করার সময় ০২টি মামলায় ৭০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন এবং সচেতনতার পাশাপাশি মাস্ক বিতরণ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আশরাফুল আলম নগরীর বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ০৫ টি মামলায় ৩১০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এ সময় অধিকাংশ সাধারণ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে দেখা যায় এবং মাস্ক বিতরণ করা হয়।নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার বিশ্বাস নগরীর পাহাড়তলী হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ০৮ টি মামলায় ২৮০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করেন। এছাড়াও লকডাউন সফল করার লক্ষ্যে সন্ধ্যার পর থেকে দুইজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আতিকুর রহমান ও মোঃ উমর ফারুক এর নেতৃত্বে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয় । ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গণ জানান, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত লকডাউন সফল করার লক্ষ্যে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত