প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] স্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক সুবিধার জন্যে বিদেশি টিকা উৎপাদনে অনুমোদন দিচ্ছে ভারত

রাশিদুল ইসলাম : [২] ভারতে বর্তমানে যে হারে টিকাদান কর্মসূচি চলছে তাতে দেশটির ১৩০ কোটি নাগরিককে টিক দিতে আরো দুই বছর সময় লেগে যাবে। অন্যদিকে কোভিডের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ভারতের অর্থনীতি পুনরুদ্ধার কর্মসূচি সাঙ্ঘাতিকভাবে হোঁচট খাওয়ায় বিদেশি টিকা অনুমোদন দিচ্ছে মোদি সরকার। দি প্রিন্ট

[৩] চলতি সপ্তাহে ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং জাপানের তৈরি ভ্যাকসিনগুলির ব্যবহার দ্রুত পরীক্ষার অনুমোদন দিতে যাচ্ছে।

[৪] বিদেশি টিকা উৎপাদনে ভারতে কোনো বাধা নেই। ভারতের জনসংখ্যার মাত্র ৭ শতাংশকে কোভিড টিকা দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

[৫] বিদেশি টিকার ক্ষেত্রে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্যে অযথা সময় ক্ষেপণের প্রয়োজন নেই বলে মনে করছে মোদি সরকার।

[৬] বরং বিদেশি টিকা যদি ভারতীয় নাগরিকদের দ্রুত দেওয়া সম্ভব হয় তাহলে তাহলে কোভিড সংক্রমণ দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হবে। একই সঙ্গে বিদেশি টিকা ভাইরাসের ভ্যাকসিন-প্রতিরোধী মিউটেশনগুলির বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করতে পারে।

[৭] অনেক দেশে ভিন্ন ভিন্ন ধরনের ভ্যাকসিন দেওয়ার সুযোগ থাকায় ভ্যাকসিন-প্রতিরোধী স্ট্রেইন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হচ্ছে এবং এ বিষয়টি ভারতে এখন যথেষ্ট গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

[৮] কোনো কোনো বিদেশি টিকার একটি ডোজ যথেষ্ট হওয়ায় এধরনের টিকাদান কর্মসূচি ভারতের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অন্য টিকার দুই ডোজের চেয়ে কম খরচে দেওয়া সম্ভব বলে মনে করছেন নীতিনির্ধারকরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত