প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বোরহানউদ্দিনে মুগের বাম্পার ফলন, লক ডাউনে লোকসানের শঙ্কায়

মনিরুজ্জামা: [২] দ্বীপজেলার ভোলার বোরহানউদ্দিনে এবার মুগ ডালের বাম্পার ফলন হয়েছে। ভালো বীজ নির্বাচন, সময় মতো প্রয়োজনীয় বীজ-সার সরবরাহ ও পোকার আক্রমণ কম থাকায় ফলন ভালো হয়েছে এমন দাবি কৃষি বিভাগের।

[৩] আবহাওয়া ভালো থাকায় কৃষক পরিবারের সদস্যরা এখন মুগ ডাল তোলায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে করোনা পরিস্থিতিতে ২ সপ্তাহের লক ডাউন চলমান। অন্যদিকে ক্রেতা সংকটে ভালো ফলন হওয়া সত্বেও লোকসানের সংকটে মাঠ পর্যায়ের চাষি ও সংশ্লিষ্টরা।

[৪] বোরহান উদ্দিন উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরে উপজেলায় মুগডাল চাষের লক্ষ্য মাত্রা ছিল ২ হাজার ৪’শ হেক্টর। অর্জন হয়েছে ২ হাজার ৫’শ ১০হেক্টর। হেক্টর প্রতি উৎপাদ ১.৬-২ মেট্রিকটন পযর্ন্ত।

[৫] উপজেলার দেউলা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের চাষী মোহাম্মাদ আলী জানান, ”দেড় একর জমিতে মুগ ডাল চাষ করেছি ৷ গত কয়েক বছরের চেয়ে এ বছর ফলন অনেক ভালো হয়েছে ৷ করোনায় লক ডাউন। তাই দাম কেমন পাই, চিন্তায় আছি”৷

[৬] একই এলাকার চাষী মাসুদ, আবদুল মান্নান এবং শাহাব উদ্দিন জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলন ভালো হওয়ায় আমরা খুশি ৷ তবে অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার পোকামাকড়ের আক্রমণ একটু বেশি ৷ তাই কীটনাশক ও বেশি ব্যবহার করতে হয়েছে । তবে করোনায় আমাগো সব শেষ কইরা দিছে।

[৭] সাচড়া ইউনিয়নের ২, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের অনেকেই জানান, বৃষ্টি না হওয়ার কারণে এবার আমরা ভালোভাবে মুগ তোলায় ব্যস্ত সময় পার করছি ৷ গাছ ও অনেক ভালো রয়েছে ৷ জমিতে চাষ, সার, বীজ ও কীটনাশসহ প্রতি একরে তাদের উৎপাদন খরচ হয়েছে ৫ – ৬ হাজার টাকা ৷ প্রতি একরে ৫ থেকে ৭ মণ করে মুগ পাওয়া যাচ্ছে ৷ সব কিছু ঠিক থাকলে প্রতি মণ ডাল ২২০০-২৩৫০ টাকা দরে পাইকারী বিক্রি করতে পারবে ৷ ক্রেতা থাকলে অনেকেই দ্বিগুন লাভের মুখ দেখবেন ৷

[৮] পাইকারি ক্রেতা জহিরুল ইসলাম বলেন, আমরা সরাসরি কৃষকদের থেকে মুগ ডাল ক্রয় করে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠাই ৷ লকডাউনের কারনে পরিবহন সংকট থাকায় আমাদের অনেক সমস্যার সম্মুখিন হতে হচ্ছে ৷ লকডাউন না থাকলে চাষীরা দাম আরো ভালো পেত বলেও জানান তিনি ৷

[৯] উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ ওমর ফারুক বলেন, মুগের ফলন ভালো। তবে ভবিষ্যতে মানসন্মত বীজ সংরক্ষণ করে বীজের ঘাটতি দূরকরণ এবং উচ্চ ফলনশীল বীজ সরবরাহ করে কৃষকদের সহায়তা করা হবে। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত