প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শামীম আহমেদ: সরকারি নির্দেশনায় কি বলা ছিলো, বিসিএস কর্মকর্তা বা পুলিশকে মানুষের চেহারা দেখে অনুমান করতে হবে তার পরিচয়, আইডি চাওয়া যাবে না?

শামীম আহমেদ: এতোদিনে বুঝলাম মন্ত্রীরা কেন উল্টা রাস্তা দিয়ে গাড়ি চালাইতো। ধরলে বলতো আমি মন্ত্রী, আমাকে ঠেকাচ্ছো কেন? সুযোগ বুঝে সবাই নিজের পরিচয় ভাঙ্গাইতে চায়। লজ্জা। লজ্জা। ‘তুই’, ‘হারামজাদা’ , ‘১০০ বার তুই বলতে পারি’, ‘মেডিকেল চান্স পাস নাই বলে পুলিশ’, ‘পুলিশ নাকি!’, ‘ডাক্তার বড় না পুলিশ বড়’। কতো বিচিত্র ভাষাই না তিনি ব্যবহার করলেন? মুক্তিযোদ্ধা বাবার নাম ভাঙিয়ে অন্যায় সুবিধা চাইলেন, সবার চাইতে আলাদা, আইডি দেখানো লাগবে না বোঝানোর চেষ্টা করলেন। কারও চেহারায় কী লেখা থাকে তার পেশার নাম?

সরকারি নির্দেশনায় কি বলা ছিলো, বিসিএস কর্মকর্তা বা পুলিশকে মানুষের চেহারা দেখে অনুমান করতে হবে তার পরিচয়? আইডি চাওয়া যাবে না? আশা করবো ডাক্তারদের এসোসিয়েসনগুলো তার ঘৃণ্য এই আচরণের প্রতিবাদ করে বোঝাবেন যে তারা সমাজের আর দু’দশজনের মতোই নিয়মের গণ্ডি মেনে চলতে চান। রাস্তায় আইডি চাইলে আইডি দেখাতে চান। কী শিক্ষার ছিড়ি। কী ব্যবহার। কী ভাষা। ছিঃ ছিঃ কী আচরণ! ধিক্কার জানাই। সাধারণ মানুষ ডাক্তারদের সম্মান করে, শ্রদ্ধা করে। কিন্তু কাউকে ভগবান মানে না। কেউ যদি ভগবান হতে চায়, তাদের উচিত বিসিএস না দেওয়া। বাংলার মানুষ কখনোই শ্রেণিবিভেদকে মর্যাদা দেয় না। লেখক : জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত