প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খাজা নিজাম উদ্দিন: এ সময়ে চিকিৎসকদের ভালো রাখুন, তারা ক্ষেপে গেলেও অন্যদের ক্ষিপ্ত না হওয়াই ভালো

খাজা নিজাম উদ্দিন: ২৫ জন ডিসি আর ২৫ জন সিভিল সার্জনের সঙ্গে আমার বেশ কয়েকবার দেখা করতে হয়েছিলো। জীবনে প্রথমবারের মতো আবিষ্কার করেছিলাম, ডিসিদের লিডারশিপের তুলনায় সিভিল সার্জনের লিডারশিপ বহু মাইল দূরে। পার্থক্যটা কেন হয়? প্রধানত প্রশাসন ক্যাডার বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত, তারা অনেক প্রশিক্ষণ পায় আর সংগত কারণে তাদের সমাজের যতো ভালো, টাউট, রাজনীতিবিদসহ বারো সেক্টরের হাজার রকমের মানুষদের ডিল করতে হয়। এটা করতে করতে তারা আসলে ম্যানেজমেন্ট এ দক্ষ হয়ে উঠে যেটা অন্য কোনো সেক্টরে এই সুযোগও নেই, সম্ভবও না। আমার দুই দোস্তো এখন দুই জেলার ডিসি। তাদের যোগাযোগ দক্ষতায় আমি অবাক হয়ে যাই। এক একটা জেলাকে নিয়ন্ত্রণে রাখা সে এক বিশাল জটিল ব্যাপার। একজন ম্যাজিস্ট্রেটের কাজ কী? তাদের অনেক কাজ আছে, আমরা জানি না। তবে এটা নিশ্চিত ক্রাইসিস ম্যানেজ করা তার একটা বড় কাজ। ঝগড়া করা তার কাজ নয়, ক্ষমতা দেখানো তার কাজ নয় তার কাজ ঝগড়ারত ২ গ্রুপ হোক আর ৫ গ্রুপ হোক, তাদের ম্যানেজ করে পরিস্থিতি শান্ত করা।

১৮ এপ্রিলের ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট তার প্রশিক্ষণ, তার দায়িত্বের প্রতি কতোটা সুআচরণ করেছেন তা পরিষ্কার। কাকে চেক করতে হবে আর কাকে করতে হবে না? এই প্রশিক্ষণ প্রশাসন আর পুলিশ দুই পক্ষের খুব ভালো আছে। তার আইডি না চাইলে হতো না? তাকে আইডি দিতেই হবে? তাকে কী ভুয়া ডাক্তার মনে হয়েছে? এই করোনায় তিনি কি সাদা অ্যাপ্রোন পরে হাওয়া খেতে বের হয়েছেন মনে হয়? গত একবছরে বাংলাদেশের সবার ওপর স্ট্রেস যাচ্ছে। সবচেয়ে বেশি যাচ্ছে চিকিৎসকদের ওপর। Some of the doctors are totally exhausted. ডাক্তারদের নিয়ে আমিও কথা বলি, যারা কমিশন খায় তাদের নিয়ে। আবার দেশে অজস্র ভালো ডাক্তার রয়েছেন। করোনার চিকিৎসা করাতে লাখ লাখ মানুষ সর্বশান্ত হয়ে যাচ্ছে। তবুও একটু বাঁচার আশায় তারা সর্বস্ব ত্যাগ করতে রাজি। কোনো এক দেশের সবচেয়ে বড় দুই ভূমিদস্যুর একজন তার হাজার হাজার কোটি টাকার বিনিময়ে একটু দম নিতে চেয়েছিলেন। এ সময়ে আমরা সবাই দম নিতে চাই। অক্সিজেন লেভেল এদিক সেদিক হলে বিপদ। চিকিৎসায় একটু ভুল হলে বিপদ। সবাই স্ট্রেসে আছি, ডাক্তাররা আছেন সবচেয়ে বেশি। কখন যে মৃত্যু ১০০২ হয়ে যাবে জানি না। এটি কোনো সংকট নয়, করোনা এক মহাসংকট তৈরি করেছে। এ সময়ে চিকিৎসকদের ভালো রাখুন, তারা ক্ষেপে গেলেও অন্যদের ক্ষিপ্ত না হওয়াই ভালো। চিকিৎসকদের ভালো রাখুন, যত্ন নিন তারা আমদের যত্ন নেবে, জাতির যত্ন নেবে, এই বিশ্বাস রাখতে চাই। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত