প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দীপু মাহমুদ: ঘটনা ভাইরাল করার আগে আসুন আমরা কষ্ট করে শানে-নজুল জেনে নিই

দীপু মাহমুদ: আপনি প্রাইভেট কারের পেছনের সিটে বসে আছেন। পুলিশ গাড়ি থামালো। সালাম দিয়েছে আপনাকে। জিগ্যেস করলো, আপনি কোথায় যাবেন? আপনি কি অমনি দুম করে গাড়ির দরজা খুলে বের হয়ে আসবেন? বেরিয়ে বলবেন, অ্যাই ব্যাটা, আমি কী রিসোর্টে যাচ্ছি? আমার সঙ্গে কি কেউ আছে? আমি কোথায় যাচ্ছি, তা জানা তোমার দরকার কী? আপনি সেটা করবেন না। আপনি গাড়ির গ্লাস নামাবেন। পুলিশকে জানাবেন, হাসপাতালের ডিউটি শেষ করে বাসায় ফিরছেন। পুলিশ যদি জানতে চায়, আপনার বাসা কোথায়? বাসায় কে কে থাকেন? যারা থাকেন তারা কেন থাকেন? বাসার সবাই মিলে দিনে কতোকেজি চাউলের ভাত খায়। রমজান মাসে চাউল কতোকেজি লাগে? তখন আপনি গাড়ি থেকে নেমে আসবেন। আমাদের দেখা ভিডিও শুরু হয়েছে ঠিক সেখান থেকে।

উত্তেজিত ডাক্তার গাড়ি থেকে নেমে আসছেন। তার গায়ে এপ্রোন, গাড়িতে স্টিকার। তার আগের অংশের ভিডিও আমরা দেখিনি। কারণ পরিস্থিতি তখন শান্ত। তারপর বংশপরিচয়, ক্ষমতা, গালাগালি সবই এসেছে কথার পিঠে কথা আটকানোর জন্য। প্রাণির নখ থাকেই আক্রমণ প্রতিহত করতে বা পাল্টা আক্রমণ করার জন্য। শুধু গা চুলকানোর জন্য নয়। আক্রান্ত হলে থাবা থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নখ বের হয়ে আসে। মাননীয় আদালতের কাছে আমার তিনটি প্রশ্ন: প্রশ্ন-[১] ডাক্তার গাড়ি থেকে নামার আগের ভিডিও নেই কেন? সেখানে কী কথাবার্তা হয়েছিলো বা ডাক্তারকে অযাচিতভাবে উত্তেজিত করা হয়েছিলো কিনা? কেন তিনি নখ বের করে গাড়ি থেকে নেমে এলেন? প্রশ্ন- [২] ডাক্তার যদি নারী না হয়ে পুরুষ হতেন তবে পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেট (যারা সকলেই পুরুষ) মিলে ডাক্তারকে এমনভাবে জিজ্ঞাসাবাদের আওতায় আনা হতো কিনা? নাকি নারীকে উত্তেজিত করার ভেতর একধরনের আনন্দ আছে। যাতে তিনি অস্বাভাবিক আচরণ করেন এবং তা ভাইরাল করা যায়? [৩] গাড়ির স্টিকার, ডাক্তারের এপ্রোন, মুভমেন্ট পাস, ডিউটি থেকে ফেরা এসব কী ভূয়া প্রমাণিত হয়েছে? ভুয়া প্রমাণিত হলে কি ম্যাজিস্ট্রেট জালিয়াতির মামলা দিয়েছেন? ঘটনা তাহলে কী দাঁড়ালো! দ্যাটস অল ফ্রম মাই সাইড, মাননীয় আদালত।

পুনশ্চ: পিতৃপরিচয়ের বর্মে নিজেকে ঢাকা, অশোভন শব্দ ব্যবহার এগুলো কারও কাম্য নয়। শুধু খেয়াল করার বিষয় কোনো অবস্থার প্রেক্ষিতে এগুলো আসছে। শানে-নজুল ছাড়া সুরার শব্দগত অর্থ শুনলে বা পড়লে ভুল বোঝার আশঙ্কা থাকে। ঘটনা ভাইরাল করার আগে আসুন আমরা কষ্ট করে শানেনজুল জেনে নিই। ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত