প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] লেবাননের অর্থনীতিতে ধস, খাদ্যপণ্যের দাম সাধারণ মানুষের ধরা-ছোঁয়ার বাইরে

সুমাইয়া ঐশী: [২] করোনার প্রভাবে লেবাননের অর্থনীতি আরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গত বছরের মার্চে মার্কিন ডলারের তুলনায় লেবানিজ পাউন্ডের মূল্য হ্রাস পায় ১০ হাজার। ঐ মাসের শেষে এই মূল্যহ্রাসের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৫ হাজারে। ২০২০ সালে লেবানিজ পাউন্ডের এই মূল্য হ্রাসের পরিমাণ ২০১৯ সালের তুলনায় ৯০ শতাংশ। আল জাজিরা

[৩] এর প্রভাব সরাসরি পড়েছে খাদ্যদ্রব্যের ওপর। এক প্লেট সালাদের দাম ছয়গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে এই বছরের রমজানে। খাদ্যদ্রব্যের মূল্য অকল্পনীয় হারে বৃদ্ধি পেলেও সাধারণ মানুষের আয় রয়ে গেছে একই রকম। ফলে মানুষের ক্রয় ক্ষমতা কমেছে। এতে রমজান মাসে ভোগান্তিতে পড়েছেন দেশটির বহু মুসল্লি।

[৪] লেবানন বেশিরভাগ খাদ্যদ্রব্যই আমদানি করে। এটি দেশটিতে ডলারের মূল্য হ্রাসের পেছনে একটি বড় ভূমিকা রাখছে। গমে সরকার ভুর্তকি দিলেও বেড়েছে রুটির দাম। দেশটিতে এক প্যাকেট রুটির দাম নিম্ন আয়ের মানুষের মোট বেতনের ১০ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে।

[৬] এদিকে দেশটিতে বেড়েছে বেকারত্বের হারও। লেবাননে বেকার মানুষের সংখ্যা এখন প্রায় ৫০ লাখ। এতে করে দাতব্য সংস্থাগুলোকেও তাদের চাহিদা মেটাতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে।

[৭] পাঁচ জনের একটি পরিবারের ব্যয়ভার এখন বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে দেশটিতে। ফলে অনেক পরিবার ইফতারের সময় আধপেটা খেয়ে আছেন, অনেকে আবার নির্ভর করেন দাতব্য সংস্থাগুলোর ওপর। সম্পাদনা: আসিফুজ্জামান পৃথিল

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত