প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাজশাহীতে ঢিলেঢালা লকডাউন, বিভিন্ন হাটবাজারে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি ও শারীরিক দূরত্ব

মঈন উদ্দীন: [২] সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী রাজশাহীতেও চলছে লকডাউন। লকডাউনের প্রথম ও দ্বিতীয় দিন কঠোরভাবে লকডাউন বাস্তবায়ন হলেও পরে আস্তে আস্তে বেশ ঢিলেঢালাভাবে লকডাউন পালিত হচ্ছে।

[৩] নগরীর বিভিন্ন রাস্তায় মানুষ চলাচল করতে দেখা গেছে। সাথে বেড়েছে রিকশা, অটোরিকশা, প্রাইভেট কারসহ ছোট যান চলাচল।

[৪] নগরীর বিভিন্ন এলাকায় মানুষের অযাচিত সমাগম দেখা গেছে। রাস্তায় দাঁড়িয়ে আড্ডাও জমিয়েছেন অনেকেই। তবে পুলিশের টহল দলকে সবসময় মাইকিং করে এসব ভিড় ভাঙ্গতে দেখা গেছে।

[৫] নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট ও চারটি প্রবেশপথে রয়েছে পুলিশ চেকপোস্ট। সেগুলোতে কড়া নজরদারি রাখা হচ্ছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরের কোন পরিবহণ প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। নগরীর অভ্যন্তরীণ চেকপোস্টগুলোতে যাত্রী ও চালকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। বাইরে বের হওয়ার উপযুক্ত কারণ দর্শাতে না পারলে জরিমানা ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

[৬] পুলিশের জেরা এড়াতে রিকশা ও অটোরিকশা চালকরা কৌশলে এসব চেকপোস্ট থেকে একটি নির্দিষ্ট দূরত্বে যাত্রীদের নামিয়ে দিচ্ছেন। চেকপোস্ট এলাকা হেঁটেই পার হচ্ছেন যাত্রীরা। এছাড়াও পুলিশের ঝামেলা এড়াতে নগরীর ভেতরের সরু রাস্তা দিয়ে যান চলাচল করতে দেখা গেছে।

[৭] বেলা বাড়ার সঙ্গে নগরীর কাঁচাবাজারগুলোতে ভিড় জমতে দেখা গেছে। টিসিবির পণ্য বিক্রয় পয়েন্টগুলোতে ব্যাপক ক্রেতা সমাগম লক্ষ্য করা গেছে। তবে সবগুলোতেই উপেক্ষিত হয়েছে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব। রমজান উপলক্ষে বেশ ভিড় লক্ষ্য করা গেছে ফলের দোকানগুলোতেও।

[৮] রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক জানান, লকডাউন বাস্তবায়নে শহরের প্রবেশপথে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। এছাড়া নগরীর গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে পুলিশের চেকপোস্ট বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আরএমপির সকল থানাগুলোর টহল দল কাজ করছে। এক্ষেত্রে বাইরে আসা জনসাধারণ সুনির্দিষ্ট কারণ দেখাতে না পারলে তাদের জরিমানা করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত