প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রংপুরে মসজিদের চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে দু’ কমিটির সংঘর্ষে নিহত এক, আটক ৪

আফরোজা সরকার : [২] জেলার কাউনিয়া হারাগাছ পৌরসভা মসজিদের চাঁদা আদায়ের টাকা নিয়ে নতুন কমিটির সঙ্গে আগের কমিটির সংঘর্ষে নাজমুল ইসলাম (৪৫) নামে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে ও তিনজন আহত হয়েছে।

[৩] বৃহস্পতিবার রাত আট টারদিকে হারাগাছ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের চেয়ারম্যানটারী সারাই জুম্মাপড়া জামে মসজিদের পাশে এ ঘটনা ঘটে।ঘটনার পরপরই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার জনকে আটক করেছে পুলিশ।

[৪] নিহত নাজমুল ইসলাম সৎবাজার এলাকার আব্দুল হকের ছেলে। সে চেয়ারম্যানটারী এলাকায় শ্বশুর বাড়িতে দীর্ঘদিন থেকে ঘড় জামাই হিসেবে বসবাস করে আসছিলো। এ সংঘর্ষে নাজমুল হক (৪৫), দয়াল মিয়া (৩৮) ও নুর আলম আহত হয়। তাদের গুরুতর আহত অবস্থায় নাজমুল হককে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

[৫] এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ জনতা ভেলুর বাড়ি ঘিরে ফেলার চেষ্টা করে। পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ ভেল্লু মিয়া (৫২), তার স্ত্রী স্বপ্না (৪২) ও দুই ছেলে রিপন মিয়া (১৮) এবং জীবন মিয়াকে (১৬)কে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

[৬] পুলিশ ওপ্রত্যক্ষদর্শী জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সারাই জুম্মাপড়া জামে মসজিদের চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে পূর্বের কমিটির সদস্য দয়াল ইসলামের সঙ্গে নতুন কমিটির সদস্য আব্দুল বারি ভেলুর বাকবিতন্ডা হয়। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ভেলু দলবল নিয়ে দয়ালের ওপর অতর্কিত হামলা করে।

[৭] এ সময় দয়ালের ভাই নুরআলম ও ভগ্নিপতি নাজমুল ইসলাম এগিয়ে আসলে তাদেরকেও বেধড়ক মারধর করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নাজমুল ইসলাম গুর“তর আহত হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

[৮] জেলার মেট্রোপলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার(মাহিগঞ্জ জোন) আল ইমরান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

[৯] মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার ওসি রেজাউল করিম বলেন, এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চার জনকে আটক করা হয়েছে। মামলা দায়েরের হয়েছে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

 

সর্বাধিক পঠিত