প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়াকে ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশের অর্থনীতি, আনন্দবাজারের সম্পাদকীয়

মাছুম বিল্লাহ: [২] কলকাতা ভিত্তিক বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকার এক সম্পাদকীয়তে এ কথা বলা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বাংলাদেশের অর্থনীতি নাগরিকদের সামাজিক-রাজনৈতিক স্থিতি দিয়েছে।

[৩] পত্রিকাটি লিখেছে, বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন চালু করার জন্য পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে বিজেপির বাংলাদেশ প্রসঙ্গ তুলছে। তারা দেখাচ্ছে, বাংলাদেশে হিন্দু সংখ্যালঘু মানুষের দুরবস্থা, অনুপ্রবেশের প্রবণতাকে। তথ্য-পরিসংখ্যান কিন্তু বাংলাদেশ হতে অনুপ্রবেশের ভিন্ন চিত্র দেখাচ্ছে।

[৪] সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, ২০০১ সালে বাংলাদেশের সিরাজগঞ্জে দুষ্কৃতীদের হাতে গণধর্ষিতা হয়েছিলের এক নারী। তিনি ধর্মপরিচয়ে হিন্দু। দীর্ঘ মামলা-শেষে ২০১১ সালে অপরাধীদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়। তার পরে কেটে গেছে দশ বৎসর, পড়াশোনা শেষে সেই নারী চাকরি করেছেন, এমনকি সংসদীয় রাজনীতিতে যোগদানের চেষ্টা করছেন। দুর্ভাগ্য, দুই দশক পুরাতন সেই হিংস্রতার স্মৃতি তার পিছু ছাড়ছে না।

[৫] পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে বিজেপি-সমর্থকরা যে গান তৈরি করেছেন, তাতে এই নারীর উল্লেখ আছে। তিনি স্বভাবতই ক্ষুব্ধ- অন্য রাষ্ট্রের এক রাজনৈতিক দল ভোটের আবহে নির্মিত ও প্রচারিত গানে কোনও অনুমতির ধার না ধেওে তার নাম ও ছবি ব্যবহার করছে, তার জীবন নিয়ে রাজনীতি করিতেছে। সেই গানের ভিডিও বার বার ফিরে আসছে একটি কথা, সেই ‘ছোট্ট মেয়ে’র খবর কেউ রাখে না।

[৬] তিনি সঙ্গত প্রশ্ন তুলিয়াছেন, এই গানের নির্মাতাই কি তার খবর রেখেছেন? খবর ‘রাখার’ প্রয়োজন নাই, খবর ‘ব্যবহার করার’ প্রয়োজন আছে। ধর্ষণের ন্যায় ঘটনা হতে হিন্দু-মুসলিম বিভেদের সারটুকু গানে ঢালিয়া দিয়া রাজনৈতিক উদ্দেশ্যসিদ্ধিই লক্ষ্য। নচেৎ কুড়ি বৎসর পূর্বের, এবং অন্য দেশের এক প্রান্তের একটি ঘটনাকে বাছাই করে তুলে আনার কোনও কারণ থাকতে পারে না।

সর্বাধিক পঠিত