প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের প্রতি ন্যূনতম শ্রদ্ধাবোধ দেখানোও হবে না?

কামরুল হাসান মামুন, ফেসবুক থেকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে ডাকসুর সাবেক সমাজকল্যাণ সম্পাদক এবং আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আখতার হোসেনকে গত পরশু ডিবি পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে বলে এমন একটি সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরপাক খাচ্ছে। তার সাথে একটি ছবিও আছে। সংবাদটি itself যদি হৃদয়বিদারক হয় তাহলে ছবিটি হবে ভয়াবহ হৃদয়বিদারক। ছবিতে দুজনকেই গরুর মত দড়ি দিয়ে বাঁধা অবস্থায় আদালতের কাঠগড়ায় উঠানো হয়েছে। একজনের কাপড় রক্তমাখা, আঙ্গুল ব্যাণ্ডেজ করা। এইরকম একটি ছবি দেখে কষ্ট পাওয়ার জন্য আমাকে কি ছাত্র হতে হবে? ওই ছাত্রের রাজনৈতিক পরিচয় জানতে হবে?

এইরকম একটি ছবি দেখে কষ্ট পাওয়ার জন্য আমাকে শিক্ষক হতে হবে? এইরকম চিত্র আমি আমার ছাত্রজীবনে স্বৈরাচার এরশাদের আমলেও কল্পনা করতে পারিনি বা তারাও ঘটানোর সাহস পায়নি। আজকের ছাত্র রাজনীতি কোন পর্যায়ে গেছে সেটা এই চিত্রই প্রমান করে। ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রকে উঠিয়ে নিয়ে যায় ছাত্রদের তেমন কোন প্রতিবাদ দেখছি না। ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রকে উঠিয়ে নিয়ে যায় ভিসি, প্রোভিসি, প্রক্টর প্রমুখ থেকে কোন প্রতিক্রিয়া দেখছি না। এমনকি প্রধান প্রধান পত্রিকায় এটি নিয়ে কোন রিপোর্ট করেছে দেখিনি। সব কেমন জানি ভোঁতা হয়ে গেছে। সব সহনীয় হয়ে গেছে। যেন উঠিয়ে নিয়ে গেছে মেরে গুমতো করেনি?

এই ছাত্ররা শিক্ষকদের জিম্মায়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন চুপ থাকতে পারেনা। তারউপর যেই ছাত্রকে উঠিয়ে নিয়ে গেছে সে কোন সাধারণ ছাত্র নয়। সে সাধারণ ছাত্রদের ভোটে ডাকসুর সমাজকল্যাণ সম্পাদক হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। এমন একজনকে এমনভাবে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে দড়ি দিয়ে বেঁধে কাঠগড়ায় উঠাবে? এই দৃশ্যও আমাদের দেখতে হলো? তার উপর সে নাকি মাত্রই টাইফয়েড থেকে উঠেছে। এই অবস্থায় এর যদি কিছু হয়ে যায়?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের প্রতি ন্যূনতম শ্রদ্ধাবোধ দেখানোও হবে না? এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ তথা বাঙালিকে কত কিছু দিয়েছে। ৫২-র ভাষা আন্দলোন, মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, সাংস্কৃতিক আন্দোলনসহ কত কত আন্দলোন সংগ্রামের জন্য এই জাতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে ঋণী। সেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, সাবেক ডাকসু নেতাকে এমন অসম্মান? তারপরও জাতি নীরব? সে কি করে, কোন রাজনীতি করে জানার দরকার নেই। সে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, সে ডাকসুর নেতা এটাই কি যথেষ্ট না? এরা কত বড় ক্রিমিনাল? এরা কি ব্যাংকের হাজার কোটি টাকা মেরেছে? এরা কি কাউকে খুন করেছে? মাদক ব্যবসা করে কোটি কোটি টাকা কামিয়ে বিদেশে পাচার করেছে? দেশের কত কত মানুষ কত বড় বড় অন্যায় করছে কিন্তু তারা ধরা ছোয়ার বাহিরে।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত