প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ আফ্রিকার পর ইউরোপীয় ইউনিয়নে জনসন টিকার ব্যবহার স্থগিত

তাহমীদ রহমান: [২] টিকা নেওয়ার পর রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ার কয়েকটি ঘটনা ঘটায় গণটিকাদান কর্মসূচিতে জনসন অ্যান্ড জনসনের এক ডোজের করোনা টিকার ব্যবহার স্থগিত করা হয়েছে। বিবিসি

[৩] যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন জানিয়েছে, জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা নেওয়ার পর এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট ছয়জন রক্ত জমাট বাঁধার শিকার হয়েছেন। আক্রান্তরা সবাই নারী এবং তাদের বয়স ১৮ থেকে ৪৮ মধ্যে।

[৪] গত ২৭ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি প্রয়োজনে ব্যবহারের জন্য জনসন অ্যান্ড জনসনের এক ডোজের করোনা টিকার অনুমোদন দেয় এফডিএ। এর আগে ফাইজার এবং মডার্নার করোনা টিকার অনুমোদন দিয়েছিল দেশটি।

[৫] যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, দেশের মাত্র ৩ শতাংশ মানুষকে এই টিকা দেওয়া হয়েছে।

[৬] এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা নেওয়ার পর যে বিরল এবং গুরুতর ধরনের রক্ত জমাট বাঁধা সমস্যা দেখা দিয়েছে, সে বিষয়ক যাবতীয় তথ্য পর্যালোচনা করা হচ্ছে। অতিরিক্ত সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে অস্থায়ীভাবে যুক্তরাষ্ট্রে এই টিকার ব্যবহার স্থগিত করা হলো।

[৭] দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জুয়েলি এমখিজ জনসনের টিকা স্থগিতের বিষয়ে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘রক্ত জমাট বাঁধার কারণ সম্পর্কে গ্রহণযোগ্য ব্যাখ্যা পাওয়ার আগ পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় এই টিকার ব্যবহার স্থগিত থাকবে।

[৮] এদিকে জনসন অ্যান্ড জনসন কর্তৃপক্ষ বলেছে, রক্ত জমাট বাঁধার সঙ্গে টিকার কোনো সম্পর্ক নেই। আমরা উদ্ভুত এই সমস্যাটির বিষয়ে সম্পূর্ণ সচেতন। এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মোট ৬৮ লাখ মানুষ আমাদের টিকা নিয়েছেন, তাদের মধ্যে আক্রান্ত হলেন ছয়জন। সম্পাদনা : রাশিদ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত