প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যত জঙ্গি তৈরি হয়, বেশিরভাগ কওমি মাদরাসার ছাত্র: কাদের মির্জা

নিইজ ডেস্ক: বাংলা নববর্ষে অপরাজনীতির লাগাম টেনে ধরতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানালেন নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

তিনি বলেন, বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য কাজ করে যাব আমরা। আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি; নববর্ষে অপরাজনীতির লাগাম টেনে ধরুন। যারা সরকারি চাকরিতে দুর্নীতি করে তাদের বিচার করুন। দরকার হলে তাদের চাকরিচ্যুত করুন।

রোববার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে নিজের ফেসবুক আইডি থেকে ঘণ্টাব্যাপী লাইভে এসে এসব কথা বলেন তিনি।

মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, যত জঙ্গি তৈরি হয়; তার বেশিরভাগ কওমি মাদরাসার ছাত্র। টাকা চুক্তি করে ওয়াজ করা; কোরআনের কোথাও নাই।

লকডাউন এখন আর কার্যকর হচ্ছে না উল্লেখ করে কাদের মির্জা বলেন, বর্তমানে মানুষ লকডাউন মানছে না। লকডাউনে সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব কার্যক্রম চালানো যেতে পারে। আজ স্কুলগুলো ছাত্রশূন্য হয়ে যাচ্ছে। হেফজখানা খোলা রাখার কারণে সব ছাত্র সেদিকে চলে যাচ্ছে।

কাদের মির্জা আরও বলেন, আমি সাহস করে সত্য কথা বলব। কোনোভাবেই আমার মুখ বন্ধ করতে পারবেন না। আমার জীবন চলে গেলেও সত্য কথা বলব।

১৬ জানুয়ারি বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে কাদের মির্জা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি আরও তিনবার মেয়র নির্বাচিত হন। নির্বাচনের আগে দলীয় নেতাকর্মীদের সমালোচনা করে সারাদেশে আলোচনার জন্ম দেন কাদের মির্জা।

এরপর কাদের মির্জার সঙ্গে তার দলীয় ও বিরোধীপক্ষের সংঘর্ষে সংবাদিকসহ দুজন নিহত হন। এসব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ জমা পড়ে আদালতে।

গত বুধবার সাড়ে ১২টার দিকে নিজের ফেসবুক লাইভে এসে দল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। তাছাড়া তিনি আর জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচন করবেন না বলেও ঘোষণা দেন। – ঢাকা ট্রিবিউন

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত