প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হীরা বিক্রি ৩ গুণ বৃদ্ধি

রাশিদ রিয়াজ : যুক্তরাষ্ট্র ও চীনে হীরার চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় মূল্যবান এ রত্নটির বিক্রিও বেড়েছে। গত মার্চে রাশিয়ার খনি কোম্পানি আলরোসা মসৃণ হীরা বিক্রি ৩ গুণ বৃদ্ধির কথা জানায়। একই সময় অমসৃণ হীরা বিক্রি দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে বলে উৎপাদকরা জানিয়েছে। আর্থিক মূলে অমসৃণ হীরা বিক্রির পরিমান ৩৪৫ মিলিয়ন ডলার এবং মসৃণ বা পোলিশ হীরা বিক্রি হয়েছে ১২ মিলিয়ন ডলারের। তবে গত মার্চে হীরা বিক্রি আগের মাসের চাইতে ৪ গুণ হ্রাস পায়। আরটি

আলরোসা বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় হীরা বিক্রেতা কোম্পানি। গত ফেব্রুয়ারিতে কোম্পানিটি অমসৃণ হীরা বিক্রি করেছে ৩৬১ মিলিয়ন ডলার। একই সময়ে মসৃণ হীরা বিক্রি করেছে কোম্পানিটি ১২ মিলিয়ন ডলার। যা আগের বিক্রির চাইতে সাড়ে ৫ শতাংশ বেশি। এবছর প্রথম তিন মাসে হীরার গড় বিক্রি হয়েছে ১ হাজার ১৫৯ বিলিয়ন ডলার। গত বছর একই সময়ে এ বিক্রির পরিমান ছিল ৯০৪ মিলিয়ন ডলার। কোভিড মহামারীর কারণে বিশ্বের হীরা বিক্রির পরিমান বিলিয়ন থেকে গত বছর প্রথম ত্রৈমাসিকে মিলিয়ন ডলারে নেমে যায়। আলরোসার সিইও এভজেনি আগুরিভ যুক্তরাষ্ট্র ও চীনে হীরা ও অলঙ্কারের বিপুল চাহিদা সৃষ্টি হয়েছে।

বিশ্বের শীর্ষ তৃতীয় স্থানে থাকা এ খনি কোম্পানিটি বছরে মোট চাহিদার ২৫ শতাংশের যোগান দিয়ে থাকে। আঙ্গোলার আরেক খনি কোম্পানি ক্যাটোকা বিশ্বে হীরার ৬ শতাংশ চাহিদা পূরণ করে। তবে এ কোম্পানির ৪১ শতাংশ মালিকানা আলরোসার। আলরোসার বাজার মূলধন হচ্ছে সাড়ে ৯ বিলিয়ন ডলার। কোম্পানিটির ৩৪ শতাংশ শেয়ার বাজারে ছাড়া রয়েছে। এর ৩৩ শতাংশ মালিকানা রুশ ফেডারেশনের। তবে গত মাসে আলরোসার হীরা বিক্রির পরিমান ১৬ শতাংশ হ্রাস পায় যা আর্থিক মূল্যে ৪৩০ মিলিয়ন ডলার। এ বছরের প্রথম দুই মাস আলরোসা হীরা বিক্রি করেছে ৮০২ মিলিয়ন ডলার যার মধ্যে ৭৮২ মিলিয়ন ডলার অমসৃণ ও ২১ মিলিয়ন ডলারের বিক্রি হয়েছে মসৃণ হীরা। আলরোসা সিইও বলেন চলতি বছরের শুরু থেকে হীরা বিক্রি ও চাহিদা দুই বাড়ছে। হীরার চাহিদা ও বিক্রির পরিমাণের মধ্যে ভারসাম্য রয়েছে বলেও তিনি জানান। চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় অনেক অলঙ্কার কোম্পানি এখন অমসৃণ হীরা মজুদের দিকে ঝুঁকবে বলে তিনি আভাস দেন।

সর্বাধিক পঠিত