প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চুয়াডাঙ্গায় নারী নির্যাতনের ঘটনাটি আপস মিমাংসা করেছে ডোম ও বাশফোড় সম্প্রদায়

সোহল রানা:[২] শরীরে বাংলা মদ ছিটিয়ে পবিত্র করার নামে নববধূকে নির্যাতনরে ঘটনাটি আপাস মিমাংসা করছে ডোম ও বাশফোড় সম্প্রদায়।(৮-এপ্রিল) বৃহস্পতিবার রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় ডাম ও বাশফাড় সম্প্রদায়র নেতৃত্ব পর্যায়র ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে এই আপাস মিমাংসা করা হয়।

[৩] এ বিষয় চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আবু জিহাদ বলন, উর্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দশে উভয় পক্ষকে থানায় ডাকা হয়। সভ্য সমাজ জাত পাতের ভেদাভেদ বাদ দিয় উভয়ই সাহার্দপূর্ণ সহঅবস্থানে বসবাস করার বিষয় একটি লিখিত অঙ্গীকার করন।

[৪] ফলে পুলিশের উপস্থিতিতে উভয় পক্ষই মিমাংসা করেন। তিনি আরও বলন, এ ঘটনা নিয়ে যদি আর কারো বাদানুবাদের সষ্টি হয় তাহলে উভয় পক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে সদর থানার পুলিশ।

[৫] প্রসঙ্গত, চুয়াডাঙ্গা সাতগাড়ি এলাকার মৃত. বিরু ডোমের ছেলে হৃদয় গত দেড়-দুই মাস আগে মাথা ভাঙ্গা ব্রীজের নিচে বসবাসকারী বাশফাড় সম্প্রদায়ের এক মেয়েকে বিয়ে করেন। এ ঘটনায় চুয়াডাঙ্গার ডোম সম্প্রদায়ের লাকজন খিপ্তহয়ে গত ২৩ মার্চ রাতে চুয়াডাঙ্গা শহরের মাছ পট্টিতে বিচার বসায়।

[৬] ওই সময় বিচারে বাশফাড় সম্প্রদায়র মেয়েকে পবিত্র করার নামে তার শরীরে বাংলা মদ ছিটিয়ে দেওয়া হয়। বিষয়টি জানাযানি হলে ব্যাপক সমালাচনা শুরু হয়। এ ঘটনায় বিক্ষাভ সমাবেশ ও মানববন্ধন কর বাংলাদশ জয়ভীম ছাত্র-যুব ফেডারেশন চুয়াডাঙ্গা শাখা।

[৭] বিক্ষোব  সমাবেশ ও মানববন্ধনে একাত্বতা ঘোষনা করে জেলার বিভিন্ন সামাজি সংগঠনের নেতারা অংশ নেন। মেয়েটির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযাগ করা হয়।

[৮] বিষয়টি নিয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পুলিশ গতকাল উভয় পক্ষকে থানায় ডাকেন। থানায় উভয় পক্ষই সাহার্দপূর্ণ সহঅবস্থানে বসবাস করার বিষয় একটি লিখিত অঙ্গীকার করলে তাদের ভিতর মিমাংসা করে দেয় পুলিশ।সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত