প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বোয়ালমারীতে করোনাকে বৃদ্ধা আঙুল দেখিয়ে চলছে জনগণ, কেউ স্বাস্থ্য বিধি মানছেন না

সনত চক্র বর্ত্তী : বোয়ালমারী উপজেলা ব্যবসায়ী, সাধারণ মানুষসহ কেউই মানছেন না সরকারি নির্দেশন। সকল কিছু উপেক্ষা করে দোকান-পাট খোলা রাখছে। জনসমাগমের সৃষ্টি হচ্ছে ফলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়াচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় বোয়ালমারী উপজেলার বাজারগুলোতে এমনই চিত্র দেখ যায়। সামাজিক দূরত্ব না মেনেই দোকান-পাট খোলা রেখে ক্রয়-বিক্রয় চলছে। ক্রেতাদের মুখে যেমন মাস্ক দেখা যায়নি তেমনি হাত মোজা ছাড়াই বিক্রেতারা পণ্য বিক্রয় করছেন। নানা অযুহাতে অনেকে রাস্তাঘাটসহ বাজার গুলোতে জনসমাগম করছে।

বোয়ালমারী উপজেলার ঠাকুরপুর বাজার, সৈয়দপুর বাজর,বর্নি বাজার, মধুর বাজার, সাতৈর বাজার, গিয়ে দেখা যায় কেউ কোন স্বাস্থ্য বিধি মানছেন না, কারো মুখে মাস্কও নেই। নিজের ইচ্ছা মতোই চলছে, করোনাকে বৃদ্ধা আঙুল দেখিয়ে চলছে বোয়ালমারী উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় মানুষ।

বোয়ালমারী উপজেলার সাতৈর বাজারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সজল বলেন, ‘দোকান খোলা না রাখলে আমাদের সংসার চালাবো কি করে। আমরা চাইতে পারিনা নিতেও পারি না। তাই দোকান খোলা ছাড়া উপায় নেই।

বোয়ালমারী বাজারের চৌরাস্তা থেকে ভ্যান চালক রাসেল বলেন আমরা দিন আনি দিন খায় ভ্যান একদিন না চালালে পরের দিন না খেয়ে থাকতে হবে। তাই বাধ্য হয়ে কাজে এসেছি।

সহাস্হ্রাল বাজার এলাকার সুমন সেখ বলেন, প্রশাসনের কর্মকর্তারা যখন আসছে তখন অনেকেই দৌড় দিয়ে তারাহুরো করে দোকান-পাট বন্ধ করছে। তারা চলে গেলে পরক্ষণেই আবার বাজার গুলোতে শুরু হচ্ছে জনসমাগম।

বোয়ালমারী উপজেলা ছাত্রলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাহাদুল আক্তার তপন বলেন, মহামারী করোনাতে দেশ থমকে দাড়িয়েছে। তাই সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে বলেন। প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে হতে বিরত থাকতে হবে।

সৌদি আরব প্রবাসী রিয়াদ আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও তরুন সমাজ সেসব আরশাফুজ্জামান মিলন বলেন, স্বাস্থ্য বিধি সবাইকে মেনে চলতে হব। বাইরে থেকে ঘরে ফিরে এসে জামা পাল্টাতে হবে, সব সময় মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, এবং সরকারি নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।তবেই এই মহামারী রোগ থেকে মুক্তি পাবো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত