প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সরাইলে গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বে প্রাণ গেল যুবকের

আরিফুল ইসলাম:[২] ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বের জেরে ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেল এক যুবকের। নিহতের নাম দেলোয়ার হোসেন (২০)।

[৩] বুধবার (৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত সাড়ে ১১টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় যুবক দেলোয়ারের মৃত্যু হয়। নিহত দেলোয়ার হোসেন উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের পাকশিমুল গ্রামের প্রবাসী হান্নান মিয়ার ছেলে।

[৪] পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম এবং একই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম ওরফে কাছম আলী এই দু’জনের মধ্যে গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিন যাবত। তাদের দু’জনের বাড়ি পাকশিমুল গ্রামে।

[৫] বুধবার সন্ধ্যায় পাকশিমুল গ্রামে ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের পক্ষের ছায়েদুল হক বদু নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে সাবেক চেয়ারম্যান কাছম আলীর ছেলে মোজাম্মেল মিয়ার তুচ্ছ ঘটনায় প্রথমে কথা কাটাকাটি ও পরে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে দু’পক্ষের লোকজন মারামারিতে লিপ্ত হয়।

[৬] এসময় দেলোয়ার হোসেনকে ছুরিকাঘাত করে প্রতিপক্ষের লোকেরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করে। গুরুতর আহত দেলোয়ারকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

[৭] এদিকে রাত সাড়ে ১১টায় দেলোয়ার হোসেনের মৃত্যুর খবর এলাকায় পৌঁছলে একপক্ষ অপরপক্ষের ঘরবাড়িতে ভাংচুর চালায়। এসময় দু’পক্ষের মধ্যে ফের মারামারি শুরু হয়। পরে রাত অনুমান ১২টার দিকে পুলিশ এসে দু’পক্ষের লোকদের শান্ত করে। এসময় চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়।

[৮] আজ বৃহস্পতিবার সকালে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম ওরফে কাছম আলী বলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের হুকুমে এই খুন করেছে তার লেলিয়ে দেয়া সন্ত্রাসীরা। আমরা চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

[৯] এ বিষয়ে জানতে চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।সরাইল সার্কেল-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় পাকশিমুল গ্রামে দেলোয়ার হোসেন নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। তার লাশ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। যতটুকু জানা গেছে তাদের মধ্যে পূর্ব থেকে গোষ্ঠীগত বিরোধ রয়েছে। রাতে কিছু ভাংচুর হয়েছে; চারজনকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন আছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত