প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সিলেট জুড়ে বোরো ধান উত্তোলন শুরু

আবুল কাশেম:[২] মৌ মৌ ধানের গন্ধে কৃষকের মুখে হাসি ,বৃহত্তর সিলেট জুড়ে বোরো ধান উত্তোলন শুরু হয়েছে। চারিদিকে মৌ মৌ ধানের গন্ধে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। সিলেটের হাওর এলাকায় তাকালে হলুদের সমারোহ দৃষ্টি কাড়ায়। এ বছর বৈশাকের আগেই সকল ধান ঘরে উঠানোর প্রস্তুতি নিয়েছেন কৃষকরা।

[৩] চলতি সাপ্তাহের থেকে হাওরে ধান টাকা মাড়াইয়ের ধুম পড়েছে। সিলেটে শহর থেকে অনেকেই গ্রাম গঞ্জে চলে যাচ্ছেন ধান উঠাতে। কৃষকরা চাচ্ছেন বন্যার আগেই ধান ঘরে তুলতে।সিলেট বিভাগের ৪ জেলার ৪২৪টি হাওরে ৪ লাখ ৮৩ হাজার ৭০৫ হেক্টর জমিতে চাষাবাদ করা হয়েছে। আবাদকৃত জমি থেকে প্রায় ২০ লাখ ৩৭ হাজার ৯৭৮ মেট্রিক টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে কৃষি বিভাগ।

[৪] সিলেট কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা পগছে, চলতি ইরি বোরো মৌসুমে সিলেট বিভাগের সকল হাওরে ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৩২৮ হেক্টর জমিতে আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। তবে, আবাদ হয়েছে ৪ লাখ ৮৩ হাজার ৭০৫ হেক্টর জমি। আবাদকৃত জমির মধ্যে রয়েছে হাইব্রিড ১ লাখ ২৬ হাজার ৪১০ হেক্টর।

[৫] উচ্চফলনশীল ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২৮২ হেক্টর ও স্থানীয় জাতের ধান ৮ হাজার ১৩ হেক্টর।সিলেট বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ আবাদ হয়েছে সুনামগঞ্জ জেলায়। এ জেলায় মোট আবাদকৃত জমির পরিমাণ ২ লাখ ২৩ হাজার ৩৩০ হেক্টর। শুধু সুনামগঞ্জ জেলা থেকেই ৮ লাখ ৮৫ হাজার ২৯৯ মেট্রিক টন চাল উৎপাদনের টার্গেট করেছে কৃষি বিভাগ।

[৬] সিলেট জেলার ৩৯টি বড় ও ১৭৪টি ছোট হাওরসহ মোট ২১৩ হাওরে আবাদ করা হয়েছে ৮১ হাজার ৯০০ হেক্টর। এর মধ্যে রয়েছে ১২ হাজার ৭০০ হেক্টর হাইব্রিড, ৬৪ হাজার ৬৩০ হেক্টর উচ্চ ফলনশীল ও ৪ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের ধান আবাদ করা হয়। সিলেট জেলার হাওর থেকে ৩ লাখ ১৬ হাজার ৫০৬ মেট্রিক টন চাল উৎপাদনের টার্গেট করেছে কৃষি বিভাগ।সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

 

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত