প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিএসএমএমইউর চিকিৎসাসেবার মানোন্নয়নসহ সামগ্রিক উন্নয়ন নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দিলেন নবনিযুক্ত উপাচার্য 

শাহীন খন্দকার: [২]  শনিবার উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ইউনিট পরিদর্শন শেষে আরও বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলাসহ সরকার ঘোষিত ১৮ দফা মেনে চলার আহ্বান জানালেন চিকিৎসক নার্স কর্মচারি কর্মকর্তাসহ দেশবাসীকে।

[৩] বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনিযুক্ত উপাচার্য অধ্যাপক এসময়ে চিকিৎসাসেবার মান আরো উন্নতিসহ চিকিৎসাসেবার সামগ্রিক উন্নয়ন ও পরিবেশগত উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেছেন, প্রতিটি বিভাগের চিকিৎসকদের। আজ শনিবার উপাচার্য মহোদয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এ-ব্লক, সি-ব্লক এবং ডি-ব্লকের বিভিন্ন বিভাগে রাউন্ড দেন এবং এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন।

[৪] তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও হাসপাতালের অভ্যন্তরে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা, অতিরিক্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রণে রাখা, বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়ালগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা, বহির্বিভাগ থেকে অনকোলজি ভবন পর্যন্ত সড়ক যানজট মুক্ত রাখার নির্দেশ দেন। রাউন্ড প্রদানকালে বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দকে চিকিৎসাসেবার মান আরও উন্নত ও বৃদ্ধি করার নির্দেশ দেন। যেকোনো সমস্যা নিয়ে উপাচার্য এর সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করতে বলেন।

[৫] রাউন্ড প্রদানকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশাররফ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, ডেন্টাল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মোঃ হাবিবুর রহমান দুলাল, পরিচালক (হাসপাতাল) বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ডা. মোঃ জুলফিকার আহমেদ আমিন, অতিরিক্ত পরিচালক ডা. নাজমুল করিম মানিক, সহকারী পরিচালক ডা. পবিত্র কুমার দেবনাথ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

[৬] এদিকে সাংবাদিকদের সাথে আপালকালে উপাচার্য কোভিড-১৯ এর ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ পরিস্থিতি মোকাবিলার সম্পর্কে বলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আরো শতাধিক সাধারণ শয্যা চালুর নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। সাধারণ শয্যা ছাড়াও আরও ১০টি আইসিইউর শয্যা বৃদ্ধি করা হবে। শয্যা বৃদ্ধির এই প্রক্রিয়া যতটা সম্ভব অব্যাহত রাখা হবে। করোনা মোকাবিলায় চিকিৎসক, নার্সসহ প্রয়োজনীয় জনবল বৃদ্ধি, কার্ডিয়াক এ্যাম্বুলেন্স চালু, ডায়ালাইসিস মেশিন সংখ্যা বৃদ্ধিসহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম নিশ্চিত করা, চিকিৎসকদের প্রণোদনার ব্যবস্থা করা, জিনোম সিকোয়েন্সিং এর ব্যবস্থা করাসহ নানামুখী কার্যকরী উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান।

[৭] করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে তিনি মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলাসহ সরকার ঘোষিত ১৮ দফা মেনে চলার আহ্বান জানান। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবার সুযোগ বৃদ্ধির জন্য কোভিড হাসপাতালগুলোতে শয্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি রাজধানীসহ জেলা উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতালগুলোতেও অক্সিজেন সিল্ডিন্ডার ও হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলার যোগান নিশ্চিত করা এবং সম্ভব হলে সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন স্থাপনের মাধ্যমে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করারও আহ্বান জানান তিনি ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত